বগুড়ায় জমি নিয়ে বিরোধে কৃষক হত্যা মামলায় একজনের যাবজ্জীবন

সর্বমোট পঠিত : 38 বার
জুম ইন জুম আউট পরে পড়ুন প্রিন্ট

বগুড়ার সোনাতলায় জমি নিয়ে বিরোধে কৃষক আবু তাহের বাবলু হত্যা মামলায় আতাউল হক সরকার নামে একজনকে যাবজ্জীবন সাজা দিয়েছে আদালত। রায়ে আরও দুজনকে খালাস দেয়া হয়।


বগুড়ার সোনাতলায় জমি নিয়ে বিরোধে কৃষক আবু তাহের বাবলু হত্যা মামলায় আতাউল হক সরকার নামে একজনকে যাবজ্জীবন সাজা দিয়েছে আদালত। রায়ে আরও দুজনকে খালাস দেয়া হয়।

১৫ বছর হত্যা মামলা চলার পর সোমবার বেলা ১১ টার দিকে বগুড়া অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালতের বিচারক হাবিবা মণ্ডল এ রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত আতাউল হক সোনাতলার উত্তর দীঘলকান্দি গ্রামের বাসিন্দা। খালাস পাওয়া দুজন হলেন বেলাল সরকার ও জুয়েল সরকার। এদের বাড়িও একই গ্রামে। 

সাজার বিষয়টি নিশ্চিত করেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী সহকারী সরকারি কৌঁসুলি (এপিপি) শাব্বির আহমেদ বিদ্যুৎ।

তিনি জানান, দণ্ডিত আতাউল নিহত আবু তাহেরের প্রতিবেশী ও দূর সম্পর্কের আত্মীয়। তাদের মধ্যে পারিবারিক জমি নিয়ে বিরোধ ছিল। ২০০৭ সালের ৯ অক্টোবর মাঠ থেকে আবু তাহের বাড়ি ফিরছিলেন । এ সময় পূর্ব বিরোধের জেরে আতাউল তার ওপর হামলা করে। হামলায় গাছের ডাল দিয়ে আবু তাহেরকে মারধর করা হয়।

এপিপি আরও জানান, এতে তিনি গুরুতর আহত হলে তাকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করায় স্বজনেরা। কিন্তু সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত সাড়ে ৩ টার দিকে মারা যান আবু তাহের।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী বলেন, এ ঘটনায় পরের দিন ওই কৃষকের শ্যালক সেলিম আকন্দ বাদী হয়ে মামলা করেন। সেই মামলায় বিচারে আতাউল হককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। আর দুজনের বিরুদ্ধে অপরাধ প্রমানিত না হওয়ায় খালাস দেয়া হয়েছে। এ মামলায় আসামী পক্ষের আইনজীবী ছিলেন রফিকুল ইসলাম ও নূরে আলম ফটিক।

মন্তব্য

আরও দেখুন

নতুন যুগ টিভি