কৃতি খেলোয়ার নিঝুমের বিয়ে: পাশে দাঁড়ালেন বগুড়া জেলা পুলিশ ও রোটারী ক্লাব অফ উত্তরা

কৃতি খেলোয়ার নিঝুমের বিয়ে: পাশে দাঁড়ালেন বগুড়া জেলা পুলিশ ও রোটারী ক্লাব অফ উত্তরা
সর্বমোট পঠিত : 131 বার
জুম ইন জুম আউট পরে পড়ুন প্রিন্ট

এ সময় পুলিশ সুপার সুদীপ চক্রবর্তী বলেন, তিনি জেলা মহিলা ক্রীড়া সংস্থা সূত্রে জানতে পারে কিছুদিন পর নিঝুমের বিয়ে কিন্তু আয়োজন করতে গিয়ে কিছুটা প্রতিবন্ধকতার সম্মুখীন হচ্ছে তার পরিবার। কৃতি এই খেলোয়াড়ের পাশে দাঁড়াতে তিনি রোটারী ক্লাব অফ উত্তরা’র দায়িত্ব প্রাপ্তদের সাথে যোগাযোগ করলে তারাও এগিয়ে আসেন মানবিকভাবে। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় বগুড়ার গর্বিত সন্তান নিঝুমের পাশে দাঁড়াতে পেরে তারা বেশ খুশি ও আনন্দিত।

জাতীয় খোখো নারী দলের খেলোয়াড় বগুড়ার কৃতি সন্তান সুমাইয়া সুলতানা নিঝুমের বিয়েতে ভালবাসার উপহারস্বরুপ আর্থিক সহায়তা প্রদানের মাধ্যমে পাশে এসে দাঁড়িয়েছে বগুড়া জেলা পুলিশ। আর পুলিশের এই মানবিক এই উদ্যোগকে পূর্ণতা দিয়েছে রোটারী ক্লাব অফ উত্তরা।

আগামী মাসে অসচ্ছল পরিবারের এই কৃতি খেলোয়াড়ের বিয়ে উপলক্ষ্যে বুধবার দুপুরে বগুড়া পুলিশ সুপার কার্যালয়ে জেলা পুলিশের আয়োজনে এবং রোটারী ক্লাব অব উত্তরার সহযোগিতায় নিঝুম ও তার পরিবারের সদস্যদের হাতে নগদ ৫০ হাজার টাকা এবং বিয়ের একটি শাড়ি তুলে দেন জেলা পুলিশ সুপার সুদীপ কুমার চক্রবর্তী বিপিএম এবং রোটারী ক্লাব অব উত্তরার সভাপতি (নমিনী) রোটা: প্রকৌশলী খন্দকার আবিদ হোসেন।

এ সময় পুলিশ সুপার সুদীপ চক্রবর্তী বলেন, তিনি জেলা মহিলা ক্রীড়া সংস্থা সূত্রে জানতে পারে কিছুদিন পর নিঝুমের বিয়ে কিন্তু আয়োজন করতে গিয়ে কিছুটা প্রতিবন্ধকতার সম্মুখীন হচ্ছে তার পরিবার। কৃতি এই খেলোয়াড়ের পাশে দাঁড়াতে তিনি রোটারী ক্লাব অফ উত্তরা’র দায়িত্ব প্রাপ্তদের সাথে যোগাযোগ করলে তারাও এগিয়ে আসেন মানবিকভাবে। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় বগুড়ার গর্বিত সন্তান নিঝুমের পাশে দাঁড়াতে পেরে তারা বেশ খুশি ও আনন্দিত।

জানা যায়, খোখো খেলোয়াড় নিঝুম বগুড়া শহরের মফিজ পাগলার মোড় এলাকার মুদি ব্যবসায়ী খলিলুর রহমানের মেয়ে। খলিলুরের তিন মেয়ের মাঝে নিঝুম ২য় সন্তান। সে ২০১৫ সাল থেকে জাতীয় দলের হয়ে নিয়মিত খেলে আসছেন। এর পাশাপাশি জাতীয় দলের ভাইস-ক্যাপ্টেন এর দায়িত্বও পালন করছে এই কৃতি খেলোয়াড়। সামনের মাসের ৫ তারিখে নিঝুমের বিয়ের কথা রয়েছে। কিন্তু ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী খলিলুর অনেক কষ্টে বড় মেয়ের বিয়ে দিলেও নিঝুমের বিয়ের খরচ নিয়ে বিপাকে পড়েন। তখন তিনি বগুড়ার পুলিশ সুপার সুদীপ কুমার চক্রবর্তী দ্বারস্থ হন এবং আর্থিক সহায়তার আবেদন জানান। সেই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে মানবিক পুলিশ সুপার সুদীপ চক্রবর্তী কৃতি এ খেলোয়াড়ের বিয়ের খরচ ব্যবস্থার আশ্বাস দেন। এতে পুলিশ সুপারের ডাকে সাড়া দেয় রোটারী ক্লাব অব উত্তরা, ঢাকা।

সহায়তা পাওয়া নিঝুম বলেন, নতুন জীবন চলার শুরুতে যেভাবে পুলিশ সুপার এবং রোটারী ক্লাব অব উত্তরা তাকে সহায়তা করলেন এতে সে ও তার পরিবার অনেক খুশী। তিনি সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।'

এ প্রসঙ্গে রোটারী ক্লাব অফ উত্তরা, ঢাকা, রোটারী জেলা-৩২৮১ এর সভাপতি (নমিনী) খন্দকার আবিদ হোসেন জানান, সমাজের সকলের দায়িত্ব একে অপরের পাশে এসে দাঁড়ানো। আর বগুড়া জেলা পুলিশ সুপারের মাধ্যমে নিঝুমের কথা জানতে পেরেই তারা ঢাকা থেকে ছুটে এসেছেন এবং জেলা পুলিশের সাথে ভাল কাজে অংশ নিয়েছেন। এসময় তিনি বিগত সময়ে পুলিশ সুপার সুদীপ চক্রবর্তীর সকল মানবিক কাজের ভূয়সী প্রশংসা করেন। একই সাথে মানবিক কাজে সর্বদা পাশে এসে দাঁড়ানোর অঙ্গীকার করেন এই রোটারিয়ান।

আর্থিক সহায়তা প্রদানকালে অন্যান্যদের মাঝে আরো উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) আলী হায়দার চৌধুরী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) মোতাহার হোসেন, রোটারী ক্লাব অব উত্তরা’র সাবেক সভাপতি রোটারীয়ান শহিদুল হাসান ফিরোজ, ক্লাবের সদস্য রোটারীয়ান সৈয়দা শাহানা আবিদ এবং বগুড়া জেলা মহিলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক দিলরুবা আমিন আকতার বানু সুইট প্রমুখ।

মন্তব্য

আরও দেখুন

নতুন যুগ টিভি