রমজান উপলক্ষে বাংলাদেশকে পেঁয়াজ ও চিনি দেবে ভারত

সর্বমোট পঠিত : 139 বার
জুম ইন জুম আউট পরে পড়ুন প্রিন্ট

চিনি ও পেঁয়াজ রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে ভারত সরকারের। তারপরও পবিত্র রমজান উপলক্ষে চিনি ও পেঁয়াজের সরবরাহ দিবে ভারত। এর আগে বাংলাদেশ সরকারের বানিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে অনুরোধ করা হয়েছিল।  রমজানকে কেন্দ্র করে ভারত ৫০ হাজার টন চিনি এবং ২০ হাজার টন পেঁয়াজ বাংলাদেশে রপ্তানি করতে পারে।


চিনি ও পেঁয়াজ রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে ভারত সরকারের। তারপরও পবিত্র রমজান উপলক্ষে চিনি ও পেঁয়াজের সরবরাহ দিবে ভারত। এর আগে বাংলাদেশ সরকারের বানিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে অনুরোধ করা হয়েছিল।  রমজানকে কেন্দ্র করে ভারত ৫০ হাজার টন চিনি এবং ২০ হাজার টন পেঁয়াজ বাংলাদেশে রপ্তানি করতে পারে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে গত সোমবার নয়াদিল্লিতে বাংলাদেশ হাইকমিশনে চিঠি পাঠিয়েছিল।  

বানিজ্য মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়,  প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী রমজানের অনেক আগেই ভারত থেকে চিনি ও পেঁয়াজ বাংলাদেশে আসবে।   বানিজ্য মন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু
এ তথ্য আজ বুধবার সাংবাদিকদের জানান।  

২০২২ সালের ডিসেম্বরে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ-ভারত বাণিজ্যমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে সে দেশ থেকে নিত্যপ্রয়োজনীয় সাত পণ্য আমদানিতে বার্ষিক কোটা (নির্ধারিত পরিমাণ) চাওয়া হয়। এসব পণ্যের মধ্যে রয়েছে চাল, গম, পেঁয়াজ, আদা, রসুন, চিনি ও মসুর ডাল। কোটা দিতে ভারত প্রাথমিকভাবে সম্মতি দিয়েছিল বলে জানিয়েছিলেন তৎকালীন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। ভারতের পরামর্শে ১৫ লাখ ৫০ হাজার টন চাল, ২৬ লাখ টন গম, ১০ লাখ টন চিনি, ৮ লাখ টন পেঁয়াজ, ৫০ হাজার টন আদা, ৭০ হাজার টন রসুন ও ১ লাখ টন মসুর ডালের কোটা চাহিদা পাঠানো হয় ভারতে। কোটা দিতে রাজি হলে ভারত কোনো পণ্য রপ্তানি বন্ধ করলেও বাংলাদেশ নির্দিষ্ট পরিমাণ পণ্য আমদানি করতে পারবে। ভুটান ও মালদ্বীপকে এ সুবিধা দিয়ে আসছে ভারত।

মন্তব্য

আরও দেখুন

নতুন যুগ টিভি