আমি বঙ্গবন্ধুর কন্যা, কারও কাছে মাথা নত করি না: শেখ হাসিনা

সর্বমোট পঠিত : 45 বার
জুম ইন জুম আউট পরে পড়ুন প্রিন্ট

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, খালেদা জিয়া মেট্রিক পরীক্ষায় শুধু অংক আর উর্দুতে পাস করেছেন, তাই ফেয়ারে পাকিস্তান বলেন। মঙ্গলবার (২ জানুয়ারি) বিকেল ৪টায় ফরিদপুরে নির্বাচনী জনসভাস্থল রাজেন্দ্র কলেজ মাঠে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।


আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, খালেদা জিয়া মেট্রিক পরীক্ষায় শুধু অংক আর উর্দুতে পাস করেছেন, তাই ফেয়ারে পাকিস্তান বলেন। মঙ্গলবার (২ জানুয়ারি) বিকেল ৪টায় ফরিদপুরে নির্বাচনী জনসভাস্থল রাজেন্দ্র কলেজ মাঠে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, নৌকা মার্কা ভোট পেলে আমি ক্ষমতায় আসতে পারবো। দেশে-বিদেশে অনেক চক্রান্ত আছে।

সব মোকাবিলা করতে হবে। একটু জমিও যাতে অনাবধি না থাকে। শাক-সবজি মাছ মাংশ উৎপাদন করতে হবে। আমার গণভবন ছোট-খাটো খামার বাড়ি। ২০০১ সালে বিএনপি জামায়াত ক্ষমতায় এসে দেশকে জঙ্গি রাষ্ট্রে পরিণত করেছে। আর আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলে মানুষের ভাগ্যের উন্নয়ন হয়। ১৯৮১ সালে দেশে ফিরে দেশ গড়তে নামি আমি।

শেখ হাসিনা বলেন, আমি জাতির পিতার কন্যা। কারও কাছে মাথা নত করি না, মাথা নত করব না। খালেদা জিয়া ক্ষমতায় এসেছিল গ্যাস বিক্রির মুচলেকা দিয়ে। আমি গ্যাস বিক্রি করতে চাইনি বলে ষড়যন্ত্র করে আমাকে আসতে দেয়নি।

অনেককে ব্যবসা-বাণিজ্যের সুযোগ দেয়া হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, মিডিয়া চালানোর সুযোগ দিয়েছি। নিচ থেকে টেনে তুলেছি। তারা এখন অনেক টাকার মালিকা হয়েছে। নির্বাচনে টাকা ছড়াচ্ছে। টাকা দিয়ে মানুষ কেনা যায় না। শামীম হক নৌকার মাঝি। ফরিদপুর বাসীর কাছে তাকে তুলে দিয়ে গেলাম।

আ.লীগ সরকার অসহায় বৃদ্ধের জন্য বয়স্ক ভাতা চালু করছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ২৯ লাখ ১০ হাজার প্রতিবন্ধিকে ভাতা দেয়া হয়। সারাদেশে বিনামূল্যে বই দেয়ার ব্যবস্থা করছে সরকার। মায়েদেরকে মাতৃত্বকালীন ভাতা প্রদান করি আমরা। বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে চাই। গার্মেন্টস শ্রমিকদের বেতন বৃদ্ধি করেছি। ২০২৩ সালে সাড়ে ১২ হাজার টাকায় উন্নীত করেছি।

এর আগে দুপুর ১টা ৫৫ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী ফরিদপুর পৌঁছে সার্কিট হাউসে আসেন। সেখানে মধ্যাহ্নভোজ ও বিশ্রাম শেষে বিকেল ৩টা ১৩ মিনিটে সরকারি রাজেন্দ্র কলেজের জনসভায় যোগ দেন। জনসভা মঞ্চে ওঠার সঙ্গে সঙ্গে নেতাকর্মীরা তাকে স্লোগান ও অভিবাদন দিয়ে বরণ করে নেন।

জনসভায় সভাপতিত্ব করছেন ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ফরিদপুর-৩ (সদর) আসনের প্রার্থী শামীম হক।

এদিকে আওয়ামী লীগ সভাপতির ফরিদপুর সফরকে ঘিরে নেতাকর্মীদের মধ্যে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। জনসভায় যোগ দিতে সকাল থেকেই রাজেন্দ্র কলেজ মাঠে আসতে শুরু করেন আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মী ও সমর্থকরা। নানা রঙের শাড়ি, রঙিন ক্যাপ-পোশাক পরে বাঁশি বাদ্যযন্ত্র বাজিয়ে মাঠে আসেন দলীয় সমর্থকরা। সঙ্গে ছিল ব্যানার, ফেস্টুন, প্ল্যাকার্ড। দুপুর ১টা ৮ মিনিটে কোরআন তেলাওয়াত, গিতা ও বাইবেল পাঠের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে জনসভা শুরু হয়।

ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহ মো. ইশতিয়াক আরিফের সঞ্চালনায় জনসভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন ফরিদপুর জেলা জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও ফরিদপুর পৌরসভার মেয়র অমিতাভ বোস, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মোহাম্মদ ফারুক হোসেন, মাসুদুল হক, সাইফুজ্জামান সেলিম, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল ও ফরিদপুর-২ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী শাহদাব আকবর প্রমুখ।

মন্তব্য

আরও দেখুন

নতুন যুগ টিভি