নিউজিল্যান্ডের কাছে ৪৪ রানে হারলো বাংলাদেশ

সর্বমোট পঠিত : 66 বার
জুম ইন জুম আউট পরে পড়ুন প্রিন্ট

নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে পারলো না বাংলাদেশ। ডাকওয়ার্থ লুইস মেথডে বাংলাদেশ নিউজিল্যান্ডের কাছে প্রথম ওয়ানডেতে হেরে গেলো ৪৪ রানের ব্যবধানে।


নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে পারলো না বাংলাদেশ। ডাকওয়ার্থ লুইস মেথডে বাংলাদেশ নিউজিল্যান্ডের কাছে প্রথম ওয়ানডেতে হেরে গেলো ৪৪ রানের ব্যবধানে।

ডানেডিনে টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল বাংলাদেশ। টসের পরই এক পশলা বৃষ্টি হানা দেয়।

যে কারণে ম্যাচ শুরু করতেই বিলম্ব হযে যায়। এরপর খেলা শুরু হলে আবারও বৃষ্টি নামে। শেষ পর্যন্ত ম্যাচ নির্ধারণ করা হয় ৩০ ওভারের। সেই ৩০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ২৩৯ রান সংগ্রহ করে কিউইরা।
বৃষ্টি আইনে বাংলাদেশের সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় সেই ৩০ ওভারেই ২৪৫। কিন্তু ব্যটারদের চরম ব্যর্থতায় বাংলাদেশ আটকে গেলো ২০০ রানের মাথায়। সর্বোচ্চ ৪৩ রান করেন ওপেনার এনামুল হক বিজয়।

মেহেদী হাসান মিরাজ শেষ পর্যন্ত টিকে থাকতে পারলেন। উইকেটও বাকি থাকলো একটি; কিন্তু জয়ের জন্য আর প্রয়োজনীয় বল বাকি থাকলো না। অর্থ্যাৎ, বৃষ্টির কারণে নির্ধারণ করে দেয়া ৩০ ওভার শেষ হয়ে গেলো ৯ উইকেটে বাংলাদেশের ২০০ রানের মাথায়। ডাকওয়ার্থ লুইস মেথডে বাংলাদেশ নিউজিল্যান্ডের কাছে প্রথম ওয়ানডেতে হেরে গেলো ৪৪ রানের ব্যবধানে।

ডানেডিনে টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলো বাংলাদেশ। টসের পরই এক পশলা বৃষ্টি হানা দেয়। যে কারণে ম্যাচ শুরু করতেই বিলম্ব হযে যায়। এরপর খেলা শুরু হলে আবারও বৃষ্টি নামে। শেষ পর্যন্ত ম্যাচ নির্ধারণ করা হয় ৩০ ওভারের। সেই ৩০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ২৩৯ রান সংগ্রহ করে কিউইরা।

বৃষ্টি আইনে বাংলাদেশের সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় সেই ৩০ ওভারেই ২৪৫। কিন্তু ব্যটারদের চরম ব্যর্থতায় বাংলাদেশ আটকে গেলো ২০০ রানের মাথায়। সর্বোচ্চ ৪৩ রান করেন ওপেনার এনামুল হক বিজয়।

জয়ের জন্য ২৪৫ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নামার পর রানরেট ঠিকই ছিল। কিন্তু উইকেট পতনের মিছিল থামছিল না টাইগারদের। যার ধারাবাহিকতায় পরাজয় ৪৪ রানের।

রান তাড়ায় নেমে শুরুতেই ধাক্কা খায় বাংলাদেশ। দলে জায়গা ফিরে পেলেন, কিন্তু অফফর্ম থেকে বের হতে পারলেন সৌম্য সরকার। নিজের সবশেষ ওয়ানডেতে শূন্য করেছিলেন। দলে ফিরে ফের শূন্য বাঁহাতি এ ব্যাটারের। আজ তিনি ৪ বল খেলে খুলতে পারেননি রানের খাতা। অ্যাডাম মিলনের বলে দ্বিতীয় স্লিপে ক্যাচ দিয়ে ফিরেছেন।

এরপর বেশ আত্মবিশ্বাসী দেখাচ্ছিল নাজমুল হোসেন শান্তকে। কিন্তু ভালো খেলতে খেলতে বাজে শটে উইকেট বিলিয়ে আসার অভ্যাস থেকে বের হতে পারেননি বাংলাদেশ অধিনায়ক। কিউই লেগস্পিনার ইশ সোধিকে রিভার্স সুইপ খেলতে গিয়ে ফিরেছেন তিনি। ১৩ বলে শান্তর ব্যাট থেকে আসে ১৫ রান।

হাফসেঞ্চুরির সুযোগ ছিল, কিন্তু দলে ফেরা এনামুল হক বিজয় নিজের ভুলেই সুযোগ নষ্ট করলেন। কিউই অভিষিক্ত পেসার ক্লার্কসনের শর্ট বল তুলে দিলেন আকাশে, ফিরতি ক্যাচ নিলেন বোলারই। ৩৯ বলে ৫ বাউন্ডারিতে ৪৩ রান করেন বিজয়।

মন্তব্য

আরও দেখুন

নতুন যুগ টিভি