গাইবান্ধায় ট্রাফিক পুলিশ নিহতের ঘটনায় জড়িত ঘাতক ট্রাক ও চালকসহ ৩ জন গ্রেফতার

সর্বমোট পঠিত : 119 বার
জুম ইন জুম আউট পরে পড়ুন প্রিন্ট

পুলিশ সুপার জানান, ঘাতক ট্রাকটির মালিক মোঃ আনিছুর রহমান নিজেই ট্রাক চালক। কিন্তু তার বদলি হিসেবে ১জন অপেশাদার, অদক্ষ, লাইসেন্সবিহীন মোঃ জামাল মিয়া সেদিন ট্রাকটি চালাচ্ছিলেন। জামাল রংপুর হতে আলু লোড করে গত বৃহস্পতিবার ২৪ আগস্ট ভোরে আলু বোঝাই ট্রাকটি জেলার ফুলছড়ি উপজেলার বালাসীঘাটে আনলোড করেন। পরে সকাল ছয়টার দিকে খালি ট্রাক নিয়ে পুনরায় রংপুরের উদ্দেশে রওনা করেন।


গাইবান্ধায় ট্রাকচাপায় ট্রাফিক পুলিশ সদস্য বিপ্লব প্রমাণিক (৪৮) নিহতের ঘটনায় ট্রাক মালিকসহ চালক-সহযোগীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আজ শনিবার সকালে পুলিশ সুপারে কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান গাইবান্ধা পুলিশ সুপার (এসপি) মোঃ কামাল হোসেন।

গ্রেফতার ব্যক্তিরা হলেন-ট্রাক চালক রংপুর জেলার মাহিগঞ্জ থানার সঙ্গীর টারী গ্রামের আব্দুল আজিজের পুত্র মোঃ জামাল মিয়া (৩৫), সহযোগী একই এলাকার ক্ষুদ্র রংপুর গ্রামের আজিজ মিয়ার পুত্র মোঃ মশিউর রহমান (২৯) ও ট্রাক মালিক জেলার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার উত্তর মরুয়াদহ গ্রামের মোঃ আলীর পুত্র মোঃ আনিছুর রহমান (৪৪)।

পুলিশ সুপার জানান, ঘাতক ট্রাকটির মালিক মোঃ আনিছুর রহমান নিজেই ট্রাক চালক। কিন্তু তার বদলি হিসেবে ১জন অপেশাদার, অদক্ষ, লাইসেন্সবিহীন মোঃ জামাল মিয়া সেদিন ট্রাকটি চালাচ্ছিলেন। জামাল রংপুর হতে আলু লোড করে গত বৃহস্পতিবার ২৪ আগস্ট ভোরে আলু বোঝাই ট্রাকটি জেলার ফুলছড়ি উপজেলার বালাসীঘাটে আনলোড করেন। পরে সকাল ছয়টার দিকে খালি ট্রাক নিয়ে পুনরায় রংপুরের উদ্দেশে রওনা করেন।

সকাল সাড়ে ৬টার দিকে গাইবান্ধা জিরো পয়েন্টে পুলিশ ক্যাফের সামনে গোল চত্বরে নিয়ম না মেনে ভুল পথে বেপরোয়া এবং দ্রুতগতিতে চালিয়ে যাওয়ার সময় কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশ সদস্য বিপ্লব প্রামানিককে ডিউটিতে থাকা অবস্থায় চাপা দেয়। এতে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থানেই তিনি মৃত্যুবরণ করেন। তখন ঘাতক ট্রাকটি দ্রুত গতিতে পুরাতন ব্রিজ দিয়ে সুন্দরগঞ্জ অভিমুখে পালিয়ে যায়।

এ বিষয়ে সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে প্রাথমিকভাবে ঘটনার সঙ্গে জড়িত আসামিদের ও ঘাতক ট্রাকটি শনাক্ত করা হয়।

পরদিন রংপুর মহনগরের বিভিন্ন জায়গায় ঝটিকা অভিযান পরিচালনা করে ঘাতক ট্রাকের ড্রাইভার মোঃ জামাল মিয়া, সহযোগী মোঃ মশিউর রহমান ও ট্রাক মালিক মোঃ আনিছুর রহমানকে গ্রেফতার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশ সদস্যকে চাপা দিয়ে হত্যা করার কথা স্বীকার করেছে।

গ্রেফতার আসামিদের স্বীকারোক্তিতে ঘাতক ট্রাকটি রংপুর জেলার মাহিগঞ্জ থানার বীরভূদ বালাটারী গ্রামের একটি গ্যারেজ হতে উদ্ধার করা হয়। তারা ট্রাকটির রং পরিবর্তন করার জন্য ওই গ্যারেজে নেয় বলে জানান পুলিশ সুপার।

মন্তব্য

আরও দেখুন

নতুন যুগ টিভি