মোংলায় খাদ্য সামগ্রী সহায়তা দেয়ার নামে টাকা আদায়ের অভিযোগে আটক -২


মোংলা প্রতিনিধিঃ
খাদ্য সামগ্রী সহায়তা দেয়ার নামে মানুষের কাছ থেকে টাকা আদায়ের অভিযোগে দুজনকে সাজা দিয়েছেন উপজেলা
নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কমলেশ মজুমদার। সোমবার দুপুরে দুইজনকে জনকে সাজা দেওয়া হয়।
এসময় উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভুমি) নয়ন কুমার রাজবংশী উপস্থিত ছিলেন ।

মিঠাখালী ইউনিয়ন পরিষদের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার মোঃ আরিফুল ফকির জানান , একটি চক্র অসহায়
লোকদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী ও নগদ অর্থ বিতরণের নামে প্রায় ৯০ জন লোকের কাছ থেকে জনপ্রতি একশ টাকা করে আদায় করছিলেন।

বিষয়টি এলাকাবাসী আমাকে জানালে আমি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবহিত করি। পরে তনি দ ‘জনকে আটক করেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কমলেশ মজুমদার জানান, করোনাকালীন সহায়তার নামে লোকের কাছ থেকে
প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ আদায়ের অভিযোগ পেয়ে শাহ আলম (৪০) ও হোসেইন (৩৫) নামের ২ জনকে আটক
করা হয়। তারা প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ আদায়ের বিষয়টি স্বীকার করেন এবং ক্ষমা প্রার্থনা করেন।

উভয়পক্ষের শুনানি শেষে অভিযুক্তদের প্রত্যেককে তিন হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ১৫ দিনের বিনাশ্রম
সাজা দেওয়া হয় । জরিমানার টাকা পরিশোধ করায় তাদেরকে জেল হাজতে না পাঠিয়ে মুক্ত করি। আদায়কৃত টাকা
তারা মঙ্গলবারের মধ্যে সকলের কাছে পৌছে দিবে।

মুক্তি পেয়ে অভিযুক্ত শাহ আলম জানান, একটি এনজিওর কাছ থেকে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করার জন্য ৬০ জনের কাছ এক শ টাকা আদায় করি। আমরা বুঝতে পেরেছি টাকা আদায় করা সঠিক হয়নি। কয়েকজন এলাকাবাসি জানান, এমন প্রতারনা মুলত কাজ শাহ আলম এর আগে আরও করেছে । এবার যদি ভাল হয়।

Top
ঘোষনাঃ