জামালপুরে নিম্নমানের কাজ করায় ড্রেন ভেঙে দিল পৌর কর্তৃপক্ষ

জামালপুরে নিম্নমানের কাজ করায় শহরের বেলটিয়া মোড় থেকে পুলিশ লাইন পর্যন্ত ৯২০ মিটার আরসিসি ড্রেন ভেঙে দিল পৌর কর্তৃপক্ষ। সেই সঙ্গে দরপত্রের শর্ত অনুযায়ী ওই ড্রেনটি করে দিতে ঠিকাদারকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার (৪ মে) দুপুরে বুলডোজার দিয়ে ওই ড্রেনটি ভেঙে ফেলা হয়। এ সময় পৌরসভার ওয়ার্ড কাউন্সিলররা উপস্থিত ছিলেন।

পৌরসভার উপ-সহকারী প্রকৌশলী ম্স্তোফা কামাল সুমন জানান, চলতি অর্থবছরে পৌরসভার অধীনে শহরের বেলটিয়া বাজার হতে পুলিশ লাইন ব্রিজ পর্যন্ত রাস্তার দুই পাশে ৯২০ মিটার দৈর্ঘ্যের আরসিসি ড্রেনটির কাজ পায় মাম কনস্ট্রাকশন/শামস ইঞ্জিনিয়ারিং নামে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। এই কাজের চুক্তিমূল্য ধরা হয়েছে ১ কোটি ৬৯ লাখ ৭০ হাজার ৮ শ টাকা। ড্রেনটির কাজে যথাযথ ডিজাইন, ড্রয়িং ও নির্দেশনা মানা হয়নি। কাজও হয়েছে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার করে।

পৌর মেয়র মো. ছানোয়ার হোসেন ছানু জানান, এই ড্রেনটি স্থানীয় ঠিকাদার মোয়াজ্জেম হোসেনের তত্ত্বাবধানে নির্মিত হচ্ছিল। ঠিকাদার এই ড্রেনের কাজে অনিয়ম ও নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার করায় কয়েকবার অভিযোগ দিয়েছেন এলাকাবাসী। পৌরসভা থেকে এ বিষয়ে ঠিকাদারকে প্রথমে মৌখিক ও পরে লিখিতভাবে অবহিত করা হলেও কাজের মানের উন্নতি হয়নি। বরং রাতের আঁধারে তড়িঘড়ি করে কাজটি শেষ করা হয়। সরেজমিনে গিয়ে মান যাচাইয়ে কাজটি নিম্নমানের প্রতীয়মান হওয়ায় পৌরসভা ওই ড্রেনটি ভেঙে ফেলার নির্দেশ দেয়। সেই সঙ্গে ড্রেনটি দরপত্রের শর্ত অনুযায়ী করে দিতে ঠিকাদারকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

তিনি আরও জানান, পৌরসভার কোনো কাজে অনিয়ম ও দুর্নীতি থাকলে একই ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

জামালপুর শহরে পৌরসভার কোনো কাজ সম্পন্ন হবার পর এই প্রথম ভেঙে ফেলার নজির দেখল পৌরবাসী। পৌরসভার অবকাঠামোগত উন্নয়নে নিম্নমানের কাজ হতে না দেওয়ায় পৌর মেয়রকে সাধুবাদ জানিয়েছেন সচেতন নাগরিকরা।

Top
ঘোষনাঃ