করোনার হানার পরও আইপিএল চালানোর পক্ষে আয়োজকরা


স্পাের্টস ডেস্ক:
পুরো ভারত করোনায় জর্জরিত হলেও জৈব সুরক্ষা বলয়ের মধ্যে রেখে আইপিএল চালিয়ে যাচ্ছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। কিন্তু তাতেও শেষ রক্ষা হয়নি। সুরক্ষা বলয় ভেদ করে করোনা হানা দিয়েছে কলকাতা নাইট রাইডার্স এবং চেন্নাই সুপার কিংস শিবিরে। এরপরই টনক নড়েছে, প্রশ্ন উঠেছে। আইপিএলের আসর চালিয়ে যাওয়া উচিত কিনা? তবে এখন পর্যন্ত স্থগিত করার কোনো খবর আসেনি।

কলকাতা নাইট রাইডার্সের দুই ক্রিকেটারের করোনা শনাক্ত হওয়ায় মাত্র ৮ ঘণ্টা আগে স্থগিত হয়েছে আইপিএলের কলকাতা-ব্যাঙ্গালুরুর ম্যাচ। জৈব সুরক্ষার বলয়ের মধ্যেই বরুণ চক্রবর্তী ও সন্দীপ ওয়ারিয়ারের পজিটিভ হওয়ার ঘটনায় আসর নিয়েও দেখা দিয়েছে শঙ্কা। এমনকি করোনা সন্দেহে আইসোলেশনে আছেন কেকেআরের অজি পেসার প্যাট কামিন্স। স্থগিত হওয়া ম্যাচটি কবে হবে কিংবা আসরের ভবিষ্যৎ নিয়ে এখনো কোনো মন্তব্য করনি আইপিএল কর্তৃপক্ষ।

মৃত্যুপুরীতে কেন বিনোদন? লাশের সারিকে পাশ কাটিয়ে কেন আইপিএল? করোনাকালে এমন প্রশ্ন তুলেছিলেন অনেকেই। ক্রিকেটারদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছিলেন। করোনা সংক্রমণের ভয়ে টুর্নামেন্টের মাঝপথেই ক্যাম্প ছেড়েছেন লিভিংস্টোন, টাই, জাম্পা, রিচার্ডসন। দেশে ফিরে জাম্পা বলেছিলেন সুরক্ষা বলয় নড়বড়ে মনে হয়েছে তার। তবে নিজেদের বায়ো বাবল নিয়ে বিসিসিআই ছিল আত্মবিশ্বাসের তুঙ্গে। কিন্তু সেই অহমে ছেদ পড়েছে। ফলাফল শঙ্কার মুখে পুরো টুর্নামেন্ট।

ম্যাচ স্থগিতের খবর জানালেও পুরো ঘটনা নিয়ে নিশ্চুপ আইপিএল কর্তারা। স্থগিত ম্যাচটি কবে হবে সেটা না জানালেও যে কোনো মূল্যে আসর শেষ করতে চায় তারা। তবে পরিস্থিতি যেভাবে দিনে দিনে জটিল থেকে জটিলতর হচ্ছে তাতে চ্যালেঞ্জ যে বহুগুণে বেড়ে গেলো সেটা তো বলাই বাহুল্য। বরং আইপিএল চালিয়ে যাওয়ার পক্ষে মত দিয়েছেন আইপিএলের বিভিন্ন ফ্র্যাঞ্চাইজির কর্মকর্তারা। ভারতীয় বিভিন্ন গণমাধ্যম জানিয়েছে, আয়োজকরা চাইছেন আইপিএল চালিয়ে নেওয়া হোক।

Top
ঘোষনাঃ