শেরপুরে শিশু ধর্ষণ চেষ্টার ৫ সপ্তাহ পরও গ্রেফতার হয়নি লম্পট শহিদুল


স্টাফ রিপোটার:
শেরপুরে চাঞ্চল্যকর শিশু ধর্ষণের মামলার ৫ সপ্তাহর পরও গ্রেফতার হয়নি লম্পট শহিদুর ইসলাম শহির (৫০)। ওই ঘটনায় শিশুর পরিবারসহ এলাকাবাসীর মাঝে উদ্বেগ-অসন্তোষ সৃষ্টি হয়েছে।

এ ব্যাপারে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই সুমন মিয়া সোমবার দুপুরে জানান, ঘটনার পর থেকেই সে পলাতক থাকায় তাকে গ্রেফতার করা সম্ভব হচ্ছে না। তবে তাকে গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

জানা যায়, গত ২৪ মার্চ বেলা আড়াইটার দিকে সদর উপজেলার লছমনপুর পশ্চিমপাড়া এলাকার মৃত আব্দুস সাত্তারের ছেলে ও স্থানীয় নার্সারী ব্যবসায়ী শহিদুল ইসলাম শহির প্রতিবেশী এক শিশু কন্যাকে নার্সারীর ফুল ও টাকা দেওয়ার প্রলোভনে ফুঁসলিয়ে তার ঘরে নিয়ে যায়। একপর্যায়ে তাকে ভয়-ভীতি দেখিয়ে পড়নের হাফপ্যান্ট খুলে ধর্ষণের চেষ্টা করে। ওইসময় তার ডাক-চিৎকারে আশেপাশের লোকজন ছুঁটে গেলে লম্পট শহিদুল শিশুটিকে বের করে দিয়ে শটকে পড়ে। ওই ঘটনা ধামাচাপা দিতে চেষ্টা চালায় লম্পট শহিদুল ও তার লোকজন। পরে ওই ঘটনায় ভিকটিমের পিতা বাদী হয়ে গত ২৭ মার্চ শেরপুর সদর থানায় শহিদুলকে একমাত্র আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন।

এরপর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই সুমন মিয়া ঘটনাটি প্রকৃতই ধর্ষণ না ধর্ষণণের চেষ্টা তা নির্ধারণে সেদিনই ভিকটিমের ডাক্তারী পরীক্ষার ব্যবস্থা করেন। সেইসাথে আদালতে গ্রহণ করা হয় ভিকটিমের জবানবন্দি। কিন্তু এখনও গ্রেফতার হয়নি লম্পট শহিদুল।

Top
ঘোষনাঃ