কুড়িগ্রামে অগ্নিকাণ্ডে ৪টি পরিবারের সবকিছুই পুড়ে ছাই


কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার উমরমজিদ এলাকায় একটি বাড়িতে অগ্নিকাণ্ডে চারটি পরিবারের ৪টি গরু, ৭টি ছাগলসহ সমস্ত কিছু পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। পরে কুড়িগ্রাম ও উলিপুর উপজেলার ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২ টার দিকে রাজারহাটের উমর মজিদ ইউনিয়নের পূর্ব বালাকান্দি সবুজপাড়া গ্রামের আব্দুল গণি মিয়ার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। এতে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ আনুমানিক প্রায় ৩০লক্ষ টাকা বলে জানায় পরিবারের সদস্যরা। বাড়ির মালিক আব্দুল গণি মিয়াসহ তার তিন ছেলে মোস্তাফিজুর রহমান, মোজাফফর রহমান, মিনহাজুল ইসলাম একই বাড়ির ৭টি কক্ষে বসবাস করতেন।
আব্দুল গণি মিয়া জানান, রাত সাড় ১২ টার দিকে তারা রান্নাঘরে আগুন দেখতে পায়। রান্নাঘরে পাটকাঠি ও খড়ি থাকায় আগুনের ভয়াবহতার কারণ তারা কিছু বুঝে ওঠার আগেই পাশের ঘর গুলোতে আগুন লেগে যায়। মুহুর্তেই আগুনে পুড়ে যায় ৪টি, গরু ৭টি ছাগল, ফ্রিজ, আসবাবপত্র, জামা কাপড়, জমানো নগদ ৫০ হাজার টাকা, ধান-চাউল সহ ৭টা কক্ষের প্রায় সবকিছু।
প্রতিবশী নুরনবী জানান, আগুন লাগার পর আমরা এসে নিভানোর চেষ্টা করি। আগুন বেশি থাকায় কাছে যেতে পাইনি। ফায়ার সার্ভিস দেরিতে পৌঁছানোর কারণে ক্ষয়ক্ষতি কমানো সম্ভব হয়নি। আগুন লাগার দেড় ঘণ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে বলেও জানান তিনি।
কুড়িগ্রাম ফায়ার সার্ভিসের (সিভিল ডিফেন্স) উপ-সহকারী পরিচালক মনোরঞ্জন রায় বলেন, খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে চেষ্টা চালায়, এরপর আরও একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। পরে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।
রাজারহাট উপজলা নির্বাহী অফিসার মোছাঃ নুর তাসনিম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে দ্রুত সহযোগীতা করা হবে।

Top
ঘোষনাঃ