দিল্লির মসনদে চোখ মমতার ভাইপোর

দিল্লির মসনদে চোখ মমতার ভাইপোর
সর্বমোট পঠিত : 6 বার
জুম ইন জুম আউট পরে পড়ুন প্রিন্ট

গুরুজনদের আশীর্বাদ নিয়ে সোমবার তৃণমূল ভবনে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হলেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সম্পাদকের পদে সদ্য বসা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যের সীমানা ছাড়িয়ে তার চোখ এখন দিল্লির কেন্দ্রীয় ক্ষমতার দিকে। সংবাদ সম্মেলনে সে কথাই বুঝিয়ে দিলেন তিনি।শুরুতেই তৃণমূলের সেকেন্ড-ইন-কমান্ড প্রশ্নে তৃণমূল কংগ্রেসের সভানেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাইপো অভিষেক বললেন, ‘তৃণমূল কংগ্রেসের আসল সম্পদ তৃণমূলের কর্মীরা। দলের কর্মীরা হলেন তৃণমূলের সেকেন্ড ম্যান। ওই জায়গা তৃণমূলের কর্মী ছাড়া কারও হতে পারে না।

‘আমি দলের একজন একনিষ্ঠ সৈনিক । আমাদের দলে নেত্রী একজনই । বাকি সবাই সৈনিক। প্রথম ও প্রধান মুখ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দল আমায় নতুন দায়িত্ব দিয়েছে। যথাযথভাবে দায়িত্ব পালন করতে আমি দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। আমাকে তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক করার জন্য আমি মমতা ব্যানার্জির কাছে কৃতজ্ঞ।’


এদিন অভিষেক ব্যানার্জি বলেন, ‘আগামী এক মাসের মধ্যেই দল সর্বভারতীয় স্তরে তার ভূমিকার রূপরেখা তৈরি করে ফেলবে। কোন রাজ্যের নির্বাচনে, জয়ের জন্যই সর্বতোভাবে ঝাঁপিয়ে পড়বে দল।’


সাংবাদিক আলাপে তিনি বলেন, ‘বাংলার মানুষ যেভাবে একনায়কতন্ত্রের বিরুদ্ধে রায় দিয়েছে, গোটা দেশের কাছে তা আশার আলো। যেভাবে মাসল পাওয়ার, মানি পাওয়ার, এজেন্সি লাগিয়ে, প্রতিটি প্রতিষ্ঠানকে পলিটিসাইজ করা হয়েছে, তার জবাব দিয়েছে বাংলার মানুষ। এমনকি নির্বাচন কমিশন ও নিরপেক্ষ ছিল না।’


বিজেপির তোলা পরিবারতন্ত্রের প্রশ্নের জবাবে অভিষেক বলেন, ‘আগে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের ছেলে জয় শাহ বিসিসিআইয়ের দায়িত্ব ছাড়ুন, এরপর এসব প্রশ্ন তুলুক বিজেপি। বিজেপির অনেক নেতা এবং তাদের পরিবার তো এমএলএ এমপি হয়ে রয়েছেন। একসঙ্গে সরকারি পদেও রয়েছেন। বিজেপি ডায়নাস্টি (পরিবারতন্ত্র) নিয়ে বলছে, আমি বলছি, ন্যাস্টির (নোংরা) থেকে ডায়নাস্টি ভালো।’


তৃণমূলের নবনির্বাচিত সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় তীব্র আক্রমণ নাম না নিয়ে শুভেন্দু অধিকারীকে বলেন, ‘বিরোধী দল নেতার কাজ করুন, দিল্লির তল্পিবাহক হতে গিয়ে বাংলাকে অপমান করছেন। হুমকি দিচ্ছেন বাংলার ৪০ লাখ মানুষ বিজেপিশাসিত রাজ্যে কাজ করেন, তাদের দেখে নেয়া হবে বলে। এ ধরনের কথা বাংলার মানুষ সহ্য করেন না। কুৎসা না করে বিরোধী দলনেতার যে কাজ সেটি ঠিকভাবে করুন।’

মন্তব্য

আরও দেখুন

নতুন যুগ টিভি