কুষ্ঠরোগ বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধিতে বগুড়ায় মতবিনিময়

সর্বমোট পঠিত : 23 বার
জুম ইন জুম আউট পরে পড়ুন প্রিন্ট

সঠিক চিকিৎসায় কুষ্ঠরোগ থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব তাই কুষ্ঠরোগকে না লুকিয়ে নিকটস্থ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বিনামূল্যে পরীক্ষাকরণের মাধ্যমে সুচিকিৎসা নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে বগুড়া স্বাস্থ্যবিভাগ।


সঠিক চিকিৎসায় কুষ্ঠরোগ থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব তাই কুষ্ঠরোগকে না লুকিয়ে নিকটস্থ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বিনামূল্যে পরীক্ষাকরণের মাধ্যমে সুচিকিৎসা নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে বগুড়া স্বাস্থ্যবিভাগ।

২০৩০ সালের মধ্যে শতভাগ কুষ্ঠরোগমুক্ত দেশ গড়ার লক্ষ্যে বর্তমান সরকার কুষ্ঠরোগীদের পরিপূর্ণ সুস্থতার জন্যে নানামুখী উদ্যোগ নিয়েছেন যেখানে দেশের তৃণমূল পর্যায়ে পৌঁছে দেয়া হয়েছে বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা যা নিশ্চিতে এখন শুধু প্রয়োজন সাধারণ মানুষের সচেতনতা।

বগুড়া সিভিল সার্জন কার্যালয়ের আয়োজনে মঙ্গলবার সকালে কার্যালয়ের সভাকক্ষে কুষ্ঠরোগ বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধিতে অনুষ্ঠিত এক মতবিনিময় সভায় এই আহ্বান জানানো হয়।

বগুড়া জেলা সিভিল সার্জন ডাঃ মোহাম্মদ শফিউল আজমের সভাপতিত্বে ১০ জন সাংবাদিক এবং কুষ্ঠরোগীদের ৩জন প্রতিনিধি নিয়ে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) দীনেশ সরকার। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, কুষ্ঠরোগে আক্রান্ত ব্যক্তিদের কাউন্সিলিং এর মাধ্যমে সর্বদা তাদের পাশে থেকে অনুপ্রাণিত করতে হবে। তাদের সুচিকিৎসা গ্রহণে উদ্বুদ্ধ করে সুস্থ করে তুলতে হবে। আর এই রোগে যারা মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয় তাদের জীবনযুদ্ধে টিকে থাকতে সকল সহায়তা প্রদানের চেষ্টা বর্তমান সরকার করে যাচ্ছে। তবে যেহেতু বিশ^ব্যাপী এইরোগের চিকিৎসা একই তাই এই রোগে কেউ আক্রান্ত হলে তা না লুকিয়ে সুচিকিৎসা নিলে সকলের জন্যেই তা মঙ্গলকর।

সভায় সভাপতির বক্তব্যে সিভিল সার্জন ডাঃ শফিউল আজম বলেন, বগুড়াতে বর্তমানে ৩৬ জন কুষ্ঠরোগী চিকিৎসাধীন আছেন। এছাড়াও এখন পর্যন্ত এই জেলায় মোট কুষ্ঠরোগীর সংখ্যা প্রায় ১৫৩২ জন যেখানে শুধু ২০২২ সালেই এই রোগে আক্রান্তের সংখ্যা ৪৮ জন। কিন্তু ইতিবাচক বিষয় হচ্ছে সঠিক সময়ে সুচিকিৎসা গ্রহণের ফলে নির্দিষ্ট একটি সময়ের মাঝেই কুষ্ঠরোগের শতভাগ জীবাণু নির্মূল করা সম্ভব তাই বগুড়ায় এই রোগে আক্রান্তদের সকলেই সুস্থতা অর্জন করেছে। শুধু তাই নয় সরকারি ও বেসরকারি নানা পন্থায় রোগীদের প্রয়োজন অনুসারে প্রদান করা হয়েছে হুইল চেয়ার, আর্থিক সহায়তা, তাদের ব্যবহারে বিনামূল্যে এখন পর্যন্ত প্রদান করা হয়েছে ৬১১ জোড়া জুতা এবং ১১ জনের জন্যে নিশ্চিত করা হয়েছে সরকারি ঘর যারা গৃহহীন ছিলেন। তাই বগুড়া স্বাস্থ্যবিভাগের পক্ষে ডাঃ শফিউল আজম সাংবাদিকদের মাধ্যমে এই রোগে আক্রান্ত ব্যক্তি বা তার পরিবারের সদস্যদের সচেতন হয়ে সঠিক সময়ে চিকিৎসা গ্রহণের আহ্বান জানান।

মতবিনিময় সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সমাজসেবা অধিদপ্তর বগুড়া জেলা কার্যালয়ে সহকারী পরিচালক আতাউর রহমান সভায় কুষ্ঠরোগীদের মাঝে যারা প্রতিবন্ধী তাদের জন্যে অধিদপ্তরের বিভিন্ন সুযোগ সুবিধাগুলো তুলে ধরেন। এছাড়াও বিভিন্ন হাসপাতালে থাকা রোগী কল্যাণ সমিতির তহবিল কিভাবে দুস্থ ও গরীব রোগীরা পেতে পারেন সে বিষয়ে আলোকপাত করেন।

মতবিনিময় সভায় অন্যান্যদের মাঝে আরো উপস্থিত ছিলেন জেলার ভারপ্রাপ্ত ডেপুটি সিভিল সার্জন ডাঃ ফারজানুল ইসলাম, ডাঃ ফারুক হোসেন, ডাঃ ফরহাদ হোসেন, লেপ্রা বাংলাদেশের প্রোজেক্ট ম্যানেজার ওয়াহেদুজ্জামান পলুসহ গণমাধ্যমকর্মীরা।

মন্তব্য

আরও দেখুন

নতুন যুগ টিভি