বগুড়ায় ৪র্থ শ্রেণীর ছাত্রীকে গণধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার ৩ বগুড়ার দুপচাঁচিয়ায় ১৩ বছর বয়সী চতুর্থ শ্রেণীতে পড়ুয়া এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে গণধর্ষণের অভিযোগে ৩জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার তাদের আদাল

সর্বমোট পঠিত : 31 বার
জুম ইন জুম আউট পরে পড়ুন প্রিন্ট

বগুড়ার দুপচাঁচিয়ায় ১৩ বছর বয়সী চতুর্থ শ্রেণীতে পড়ুয়া এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে গণধর্ষণের অভিযোগে ৩জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।


বগুড়ার দুপচাঁচিয়ায় ১৩ বছর বয়সী চতুর্থ শ্রেণীতে পড়ুয়া এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে গণধর্ষণের অভিযোগে ৩জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে ওই স্কুল ছাত্রীর মা বাদী হয়ে বুধবার রাতে দুপচাঁচিয়া থানায় গ্রেপ্তার ৩জনসহ অজ্ঞাতনামা আরো ৩ জনের নামে মামলা দায়ের করেন। পরে বুধবার দিবাগত রাত ৩ টার দিকে উপজেলার তালোড়া সঞ্জারবাড়ি এলাকার নিজ বাড়ি থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, উপজেলার তালোড়া পৌরসভার সরঞ্জাবাড়ী মহল্লার নাসির উদ্দিনের ছেলে ৩৫ বছর বয়সী পান্না, মৃত ইব্রাহীম আলীর ছেলে ৫০ বছর বয়সী ফেরদৌস ও মৃত সিরাজ মন্ডলের ছেলে ৪০ বছর বয়সী দুদু।

মামলা সূত্রে জানা যায়, বাদী অন্যের বাড়িতে কাজ করে তার ছোট মেয়ে কে (১৩) নিয়ে থাকেন। তার মেয়ে মাদ্রাসায় চতুর্থ শ্রেণীতে পড়াশোনা করে। সেই সুযোগে গ্রেপ্তারকৃতরা বিভিন্ন সময়ে ওই মাদ্রাসা ছাত্রীকে প্রলোভিত করে বিড়ি, সিগারেট, গাঁজা সেবন করা শেখায়।

বাদী এ বিষয়ে জানার পর অভিযুক্তদের নিষেধ করেন। কিন্তু তারা তাকে বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি দেখান। একসময় তিনি বাড়িতে না থাকার সুযোগে ওই তিনজন মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণ করেন।

গত মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮ টার দিকে মাদ্রাসা ছাত্রী বাড়ির থেকে নিখোঁজ হয়ে যায়। পরেরদিন বুধবার তার মেয়ে বাড়িতে ফিরে আসে। তখন তিনি জিজ্ঞেস করলে মেয়ে জানায় প্রলোভন দেখিয়ে গ্রেপ্তার ৩জন তাকে দুপচাঁচিয়ার সরঞ্জাবাড়ির তিনমাথা মোড়ের পশ্চিম পাশের একটি চাতালে নিয়ে যায়। সেখানে ভোররাত পর্যন্ত তাকে পালাক্রমে তাদের দলবলসহ ধর্ষণ করে।

এ প্রসঙ্গে দুপচাঁচিয়ায় থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল কালাম আজাদ জানান, মামলার পরেই অভিযান চালিয়ে ৩জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত বাকিদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য

আরও দেখুন

নতুন যুগ টিভি