পদ্মা সেতু খুললেও চালু থাকবে ফেরিঘাট: নৌপ্রতিমন্ত্রী

সর্বমোট পঠিত : 72 বার
জুম ইন জুম আউট পরে পড়ুন প্রিন্ট

পদ্মা সেতু উদ্বোধনের পরও শিমুলিয়ায় ফেরিঘাট চালু থাকবে বলে জানিয়েছেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। তিনি বলেন, পদ্মা সেতু চালু হলে নদীকেন্দ্রিক পর্যটন কেন্দ্র গড়ে উঠবে। শিমুলিয়া ঘাটে ফেরির চাহিদা বেড়ে যাবে।

পদ্মা সেতু উদ্বোধনের পরও শিমুলিয়ায় ফেরিঘাট চালু থাকবে বলে জানিয়েছেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। তিনি বলেন, পদ্মা সেতু চালু হলে নদীকেন্দ্রিক পর্যটন কেন্দ্র গড়ে উঠবে। শিমুলিয়া ঘাটে ফেরির চাহিদা বেড়ে যাবে।

শিমুলিয়ায় পর্যটন কেন্দ্রিক ইকোজোন গড়ে তোলা হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এতে কর্মসংস্থান হবে। কেউ বেকার থাকবে না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের সময়ে কেউ বেকার থাকবে না। নদীকে ঘিরে জীবন-জীবিকা চলবে।

সারাদেশে ফেরির চাহিদা রয়েছে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, আরও ১২টি নতুন ফেরি সংগ্রহ করা হচ্ছে।

আজ শনিবার পদ্মা সেতু এলাকায় বাংলাবাজার ঘাট পরিদর্শন শেষে ঢাকা যাওয়ার পথে মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাটে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন। এ সময় অন্যান্যের মধ‍্যে জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী এমপি, মাদারীপুর জেলা পরিষদের প্রশাসক মুনির চৌধুরী, বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) চেয়ারম‍্যান কমডোর গোলাম সাদেক, জেলা প্রশাসক রহিমা বেগম উপস্থিত ছিলেন।

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী বলেন, গত ১৩ বছরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে ন‍ৌ, সড়ক, রেল ও আকাশপথে যোগাযোগ ব‍্যবস্থায় অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে। ১০ হাজার কিলোমিটার নৌপথের উন্নয়ন করা হচ্ছে। ৩৭টি নদী বন্দর এবং সমুদ্র বন্দরগুলোর উন্নয়ন, ৬ লেন ও ৪ লেনের সড়ক, আকাশপথে কানাডাসহ আন্তর্জাতিক রুটে বিমান চলাচল হচ্ছে। যোগাযোগ ব‍্যবস্থার উন্নয়নে বাংলাদেশ এখন রোল মডেল।

তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথিবীর দক্ষ প্রশাসকদের মধ‍্যে অন্যতম। লিডারশীপে অনন্য। তার সুযোগ্য নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে।

পদ্মা সেতু উদ্বোধন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, গর্বের পদ্মা সেতুর উদ্বোধনকে ঘিরে যে উৎসব হবে, দেশের ৫০ বছরের ইতিহাসে তা হয়নি। ১০ লক্ষাধিক মানুষের সমাবেশ ঘটবে। দেশের ১৭ কোটি মানুষের দৃষ্টি থাকবে উৎসবের দিকে।

উল্লেখ্য, পদ্মা নদীর বুকে দেশের অর্থায়নে ৩০ হাজার কোটি টাকায় ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এই সেতুর কাজ ২০১৫ সালের ডিসেম্বরে উদ্বোধন করেছিলেন শেখ হাসিনা। নির্মাণকাজ শেষ হয়েছে। আগামী ২৫ জুন জমকালো উদ্বোধনের লক্ষ্যে সরকারের পক্ষ থেকে চলছে বিপুল তোড়জোড়।

মন্তব্য

আরও দেখুন

নতুন যুগ টিভি