লকডাউনে চিড়িয়াখানায় বন্যপরিবেশ, বেড়েছে প্রাণীদের চঞ্চলতা

বন্যপরিবেশ
সর্বমোট পঠিত : 42 বার
জুম ইন জুম আউট পরে পড়ুন প্রিন্ট

মাইক্রোফোন ধরতেই শোনা যায় ভারতের মরুভূমি থেকে আসা সিংহ রাজার গর্জন। পাশের খাঁচায় বন্দী সুন্দরবনের রয়েল বেঙ্গল টাইগার টগর। বন্দীদশা থেকে মুক্ত না হতে পারা টগর, ক্যামেরা দেখতেই শুরু করে পায়চারী। করোনার বিধিনিষেধ উপেক্ষা করে টগর আপন করে নিতে ভুলেনা অচেনা মানুষকেও।


নিজ জগৎ থেকে বন্দী বনের রাজা সিংহ আর সুন্দরবনের রয়েল বেঙ্গল টাইগার যেনো ফিরে পেয়েছে তার আপন রাজ্য। প্রাকৃতিক অপরুপ সৌন্দর্য্যে নৃত্যের ছন্দে ময়ূর মেলেছে পেখম। চিত্রা হরিণের দল ছুটে বেড়াচ্ছে পুরো মাঠ জুড়ে।

এই সুযোগে দর্শনার্থীদের জন্য প্রানবন্ত করতে ঢালাও ভাবে সাজানোর পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন চিড়িয়াখানার পরিচালক। খাঁচার এতো কাছ থেকে হয়তো সিংহের গর্জন শুনেননি কোন দর্শনার্থী।

এভাবেই আন্দন্দে মেতেছে আফ্রিকা থেকে আনা পুরুষ সিংহ দীপ ও তার সাথী মণি। লকডাউনে দর্শনার্থী শূন্য কোলাহলমুক্ত মিরপুরের জাতীয় চিড়িয়াখানার এমন দৃশ্য দেখতে পাওয়া দুষ্কর।

মাইক্রোফোন ধরতেই শোনা যায় ভারতের মরুভূমি থেকে আসা সিংহ রাজার গর্জন। পাশের খাঁচায় বন্দী সুন্দরবনের রয়েল বেঙ্গল টাইগার টগর। বন্দীদশা থেকে মুক্ত না হতে পারা টগর, ক্যামেরা দেখতেই শুরু করে পায়চারী। করোনার বিধিনিষেধ উপেক্ষা করে টগর আপন করে নিতে ভুলেনা অচেনা মানুষকেও।

জল ছেড়ে ডাঙ্গায় জলের রাজা জলহস্তী। মায়ের পরম আদরে দুগ্ধপান জেব্রার বাচ্চার এমন দৃশ্য থমকে দেয় জিরাফের গর্ব করা উচ্চতা। করোনার এই লকডাউনে বেড়ে পশুপাখির প্রজনন ক্ষমতা। ইনকিউবেটরে পরিচর্যায় আছে একশো ময়ূরের বাচ্চা।

লকডাউনে দর্শনার্থী শূন্য থাকায় পশুপাখি কতোটা স্বস্তিতে জানান চিড়িয়াখানা পরিচালক।

পর্যাপ্ত পরিমাণ খাদ্য ও পরিচর্যায় বেড়েছে চিত্রা হরিণের সংখ্যা। পশুপ্রেমীদের কাছে নিয়মানুযায়ী বিক্রিসহ ভবিষৎ পরিকল্পনার কথাও জানান এই কর্মকর্তা।

করোনার দুর্যোগ কাটিয়ে পুরোদেশ স্বাভাবিক হলে দর্শনার্থীতে মুখরিত হয়ে উঠার অপেক্ষায় আছে আরো সবুজ হয়ে উঠা প্রিয় চিড়িয়াখানা।

মন্তব্য

আরও দেখুন

নতুন যুগ টিভি