শেরপুরে রক্তসৈনিক বাংলাদেশ ময়মনসিংহ বিভাগীয় সেরা রক্ত সংগ্রহকারীদের মাঝে সম্মাননা প্রদান

সর্বমোট পঠিত : 116 বার
জুম ইন জুম আউট পরে পড়ুন প্রিন্ট

উক্ত অনুষ্ঠানে রক্তসৈনিক বাংলাদেশ, শেরপুর জেলা শাখা এর উপদেষ্টা মন্ডলী সদস্য ও শেরপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি এ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম আধার বলেন রক্ত সংগ্রহ ও রক্তদান একটি কঠিন কাজ রক্তসৈনিক বাংলাদেশ মানবতার সেবায় কাজ করে বাংলাদেশে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। আমি তাদের মহতি কার্যক্রমে পাশে ছিলাম পাশে আছি। পাশাপাশি তিনি বলেন এখনও দেশে কিছু অসাধু লোক রয়েছে যারা নেশার টাকা জোগার করতে তাদের রক্ত বিক্র করে যে রক্ত গুলো বিশুদ্ধ রক্ত নয় সেগুলো রোগীর শরীরে প্রবেশ করালে রোগীর অবস্থার অবনতি হতে পারে তাই তাদের এই কাজ বন্ধ করতে রক্তসৈনিক সদস্য সহ সচেতন মহলের সবাইকে আরও সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে।

একের রক্ত অন্যের জীবন, রক্তই হোক রক্তসৈনিকের বন্ধন এ স্লোগানকে সামনে রেখে আজ ১৩ মে শুক্রবার শেরপুর জেলা ডায়াবেটিকস হাসপতাল মিলনায়নতে ত্রৈমাসিক ময়মনসিংহ বিভাগীয় সেরা রক্ত সংগ্রহকারী সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে রক্তসৈনিক বাংলাদেশ এর সভাপতি রাজিয়া সামাদ ডালিয়া এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রক্তসৈনিক বাংলাদেশ, শেরপুর জেলা শাখা এর উপদেষ্টা মন্ডলী সদস্য ও শেরপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি এ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম আধার, প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রক্তসৈনিক বাংলাদেশ এর প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক আল আমিন রাজু, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপদেষ্টা মন্ডলী সদস্য ও মানবাধিকার কর্মী তাহমিনা জলী।

জানা যায় বিগত ২১ আগস্ট ২০২১ হইতে ৩০ ডিসেম্বর ২০২১ এর ময়মনসিংগ বিভাগীয় ত্রৈমাসিক প্রতিযোগিতায় ২৮৭ ব্যাগ রক্ত সংগ্রহ করে প্রথম স্থান অধিকার করেন রক্তসৈনিক শেরপুর ৭নং পৌর ওয়ার্ড এর সভাপতি সাজ্জাদ হোসেন, ২৮০ ব্যাগ রক্ত সংগ্রহ করে দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেন রক্তসৈনিক শ্রীবরদী এর সভাপতি সাজিদ হাসান শান্ত এবং ২৬৫ ব্যাগ রক্ত সংগ্রহ করে তৃতীয় স্থান অধিকার করেন রক্তসৈনিক ঝিনাইগাতি এর সিনিয়র সহ সভাপতি জজ মিয়া। এবং ১ ডিসেম্বর ২০২১ হইতে ২৫ মার্চ ২০২২ এর ময়মনসিংগ বিভাগীয় ত্রৈমাসিক প্রতিযোগিতায় ২৯০ ব্যাগ রক্ত সংগ্রহ করে প্রথম স্থান অধিকার করেন রক্তসৈনিক শেরপুর ৮নং পৌর ওয়ার্ড এর সাধারণ সম্পাদক অন্তর আহমেদ, ২৭৮ ব্যাগ রক্ত সংগ্রহ করে দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেন রক্তসৈনিক শ্রীবরদী এর সভাপতি সাজিদ হাসান শান্ত এবং ২৫৬ ব্যাগ রক্ত সংগ্রহ করে তৃতীয় স্থান অধিকার করেন রক্তসৈনিক শেরপুর ৭নং পৌর ওয়ার্ড এর সভাপতি সাজ্জাদ হোসেন।

রক্তসৈনিক বাংলাদেশ ফেসবুকে গ্রুপের মডারেটরদের মধ্যে সেরা টিম লিডার মার্চ-২০২২ নির্বাচিত হয়েছেন তানকিন হোসেন তুহিন ও এপ্রিল-২০২২ সেরা টিম লিডার ব্রিজেট বেবী।

উক্ত অনুষ্ঠানে রক্তসৈনিক বাংলাদেশ এর সভাপতি রাজিয়া সামাদ ডালিয়া বলেন, আমরা রক্তসৈনিক পরিবার কথা নয় কাজে বিশ্বাসী মহান মুক্তিযোদ্ধের চেতনায় আমরা আমাদের রক্তসৈনিক সহযোদ্ধাদের মানবিক কাজের মাধ্যমে অসহায় মানুষের মুখে হাসি ফুটিয়ে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়বো ইনশাআল্লাহ। পাশাপাশি তোমাদের ইনোভেটিক কাজ গুলো আমাকে মুগ্ধ করে । তোমরা যখন ভালো কাজ করো তখন আমার বুক আনন্দে ভরে যায় তোমরা আমাদের সোনার ছেলে। তোমরা যেখানেই থাকো মানুষের জন্য কাজ করবে এটাই আমার প্রত্যাশা। পাশাপাশি বই পড়তে হবে বাংলাদেশের অতীত ইতিহাস জানতে হবে।

উক্ত অনুষ্ঠানে রক্তসৈনিক বাংলাদেশ, শেরপুর জেলা শাখা এর উপদেষ্টা মন্ডলী সদস্য ও শেরপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি এ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম আধার বলেন রক্ত সংগ্রহ ও রক্তদান একটি কঠিন কাজ রক্তসৈনিক বাংলাদেশ মানবতার সেবায় কাজ করে বাংলাদেশে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। আমি তাদের মহতি কার্যক্রমে পাশে ছিলাম পাশে আছি। পাশাপাশি তিনি বলেন এখনও দেশে কিছু অসাধু লোক রয়েছে যারা নেশার টাকা জোগার করতে তাদের রক্ত বিক্র করে যে রক্ত গুলো বিশুদ্ধ রক্ত নয় সেগুলো রোগীর শরীরে প্রবেশ করালে রোগীর অবস্থার অবনতি হতে পারে তাই তাদের এই কাজ বন্ধ করতে রক্তসৈনিক সদস্য সহ সচেতন মহলের সবাইকে আরও সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে।

তিনি আরও বলেন রক্তসৈনিক পরিবার যে জন্মদিনে রক্তদানের মতো মহতি রক্তদানের মতো কাজ করে যাচ্ছেন তা চমৎকার উদ্যোগ এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে তিনিও তার জন্মদিনে রক্তদান করার আশ্বাস ব্যাক্ত করেন।

রক্তসৈনিক বাংলাদেশ এর প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক আল আমিন রাজু বলেন আমরা রক্তসৈনিক বাংলাদেশ পরিবার মুক্তিযোদ্ধের চেতনায় মানুষের জন্য কাজ করি একমাত্র স্রষ্টার সন্তষ্টির জন্য। এ দেশ আমাদের কাছে মায়ের সমান। এই দেশ এমনি এমনি স্বাধীন হয়নি লাখো শহীদের রক্তের বিনিময়ে আমরা এই বাংলাদেশ পেয়েছি এখানে বসবাস করছি সুনাগরিক হিসেবে দেশের প্রতি দেশের মানুষের প্রতি আমাদের দায়িত্ব ও কর্তব্য রয়েছে। সেই দায়িত্ববোধ থেকে মানুষের জন্যে কাজ করতে হবে মানুষের পাশে দাড়াতে হবে। এবং আমরা চাই প্রত্যেক ঘরে ঘরে রক্তসৈনিক তৈরি করতে হবে । যেনও নিজেদের পরিবারের রক্তের প্রয়োজনে নিজেরা রক্তদান বা রক্তদাতা ম্যানেজ করতে পারে।

উপদেষ্টা মন্ডলী সদস্য ও মানবাধিকার কর্মী তাহমিনা জলী বলেন রক্তদান নিঃসন্দেহে ভালো কাজ এ কাজ আমিও আমার জন্মদিনে রক্তসৈনিক এর মাধ্যমে শুরু দেওয়ার সুযোগ পেয়েছি। তোমাদের ভালো কাজে আমি সবসময় পাশে আছি পাশে থাকবো।

পরে অনুষ্ঠান শেষে অতিথিগন সেরা রক্ত সংগ্রহকারীদের হাতে সম্মাননা স্মারক ও উদ্দীপনা উপহার তুলে দেন।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন রক্তসৈনিক শেরপুর এর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লাবিব হাসান স্বপন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তানভীর মাহতাব, দুর্যোগ ও ত্রাণ বিষয়ক সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম, সহকারী সমাজসেবা বিষয়ক সম্পাদক ইভানা ফারদীন জোহা, রক্তসৈনিক বাংলাদেশ, শ্রীবরদী এর সভাপতি সাজিদ হাসান শান্ত, ঝিনাইগাতি এর সিনিয়র সহ সভাপতি জজ মিয়া, সাধারণ সম্পাদক সোহাগ মিয়া, রক্তসৈনিক শেরপুর ৭নং পৌর ওয়ার্ড শাখার সভাপতি সাজ্জাদ হোসেন, ৫নং পৌর ওয়ার্ড শাখা এর সভাপতি শাকির মাহমুদ, সহ-সভাপতি মোহাইমিন হাসান সাবিদ, ৮নং পৌর ওয়ার্ড শাখা এর সাধারণ সম্পাদক অন্তর আহমেদ।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন রক্তসৈনিক শেরপুর এর সদস্য আবু রায়হান, ব্রিজেট বেবী, মেহেদী হাসান সিফাত, রিফাতুজ্জামান কাব্য, রিমজিম রিমি, জুনায়েদ রহমান জুয়েল, মাজহারুল ইসলাম, জিনিয়া, রাসেল শেখ, তানকিন হোসেন তুহিন, সাদ্দাম হোসেন, জিম মিয়া প্রমুখ।

মন্তব্য

আরও দেখুন

নতুন যুগ টিভি