কর্মস্থলে ফেরা মানুষের ভিড় দৌলতদিয়া-পাটুরিয়ায়

সর্বমোট পঠিত : 29 বার
জুম ইন জুম আউট পরে পড়ুন প্রিন্ট

বিআইডব্লিউটিসির দৌলতদিয়া ঘাট কার্যালয়ের ব্যবস্থাপক শিহাব উদ্দিন বলেন, এই ঈদে যানবাহন পারাপার নির্বিঘ্ন করতে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ২১টি ফেরি প্রস্তুত রয়েছে। এর মধ্যে ১০-১২টি ফেরি যানবাহন পারাপার করছে। যানবাহনের সংখ্যা বৃদ্ধি পেলে ফেরির সংখ্যা বাড়ানো হবে। নির্বিঘ্নে যাত্রীরা নিজ নিজ গন্তব্যে যেতে পারছেন বলে দাবি করেন এই কর্মকর্তা।

ঈদের ছুটি শেষে জীবিকার তাগিদে রাজধানী ঢাকাসহ আশপাশের জেলায় ফিরতে শুরু করেছেন দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের মানুষ। বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ঘাট এলাকায় প্রচুর মানুষের ভিড় দেখা গেছে।

যাত্রীবাহী অতিরিক্ত যানবাহনের চাপে দৌলতদিয়া ঘাটমুখী মহাসড়কে অন্তত দেড় কিলোমিটার এলাকায় সৃষ্টি হয় যানজট। দৌলতদিয়া ঘাটের জিরো পয়েন্ট থেকে মহাসড়কের ক্যানেল ঘাট পর্যন্ত যানবাহনের সারিতে শতাধিক যাত্রীবাহী বাস আটকা পড়ে। 

তবে বিআইডব্লিউটিসি কর্তৃপক্ষ দাবি করছে, ফেরির জন্য কোনো যানবাহন ঘাটে আটকা নেই। যে বাসগুলো সিরিয়ালে আছে সেগুলো দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের বিভিন্ন জেলা থেকে কর্মস্থলগামী যাত্রী নিয়ে দৌলতদিয়া ঘাটে এসেছে।

এদিকে যাত্রী হয়রানি ও অতিরিক্ত ভাড়া আদায় নিয়ন্ত্রণ করতে আজ বৃহস্পতিবারও দৌলতদিয়া ঘাট এলাকায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হচ্ছে। এবারের ঈদে মোটরসাইকেলের চলাচল বেড়েছে।

বিআইডব্লিউটিসির দৌলতদিয়া ঘাট কার্যালয়ের ব্যবস্থাপক শিহাব উদ্দিন বলেন, এই ঈদে যানবাহন পারাপার নির্বিঘ্ন করতে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ২১টি ফেরি প্রস্তুত রয়েছে। এর মধ্যে ১০-১২টি ফেরি যানবাহন পারাপার করছে। যানবাহনের সংখ্যা বৃদ্ধি পেলে ফেরির সংখ্যা বাড়ানো হবে। নির্বিঘ্নে যাত্রীরা নিজ নিজ গন্তব্যে যেতে পারছেন বলে দাবি করেন এই কর্মকর্তা।

মন্তব্য

আরও দেখুন

নতুন যুগ টিভি