শেরপুর অনলাইন জার্নালিস্ট ফোরামের দোয়া ও ইফতার মাহফিল

সরকার গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নিশ্চিত করেছে॥ এ্যাড. চন্দন কুমার পাল

শেরপুর অনলাইন জার্নালিস্ট ফোরামের দোয়া ও ইফতার মাহফিল
সর্বমোট পঠিত : 89 বার
জুম ইন জুম আউট পরে পড়ুন প্রিন্ট

অনুষ্ঠানে সর্বসম্মতিক্রমে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট চন্দন কুমার পাল পিপিকে সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের সাধারণ সম্পাদক ডা. শারমিন রহমান অমিকে উপদেষ্টা মনোনীত করা হয়।

শেরপুরে প্রথিতযশা সাংবাদিকদের পদাঙ্ক অনুসরণ করে যাত্রা শুরু করা শেরপুর অনলাইন জার্নালিস্ট ফোরামের উদ্যোগে দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২৬ এপ্রিল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় শহরের নিউমার্কেটস্থ পালকি চাইনিজ রেস্টুরেন্টে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট চন্দন কুমার পাল পিপি।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য তনয়া দেশরত্ন শেখ হাসিনা গণমাধ্যমের স্বাধীনতায় বিশ্বাসী। এজন্য সরকার গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নিশ্চিত করেছে। গণমাধ্যমকর্মীরা আজকে স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারছে। তিনি আরও বলেন, সাংবাদিকদেরকে সততা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করতে হবে এবং সুষ্ঠু সাংবাদিকতার স্বার্থে নিরপেক্ষতাও বজায় রাখতে হবে। তবে সাদাকে সাদা ও কালোকে কালো বলার মতো অবস্থাও থাকতে হবে। তিনি বলেন, বর্তমান যুগ ডিজিটালাইজেশনের যুগ। শেখ হাসিনার সফল নেতৃত্বের কারণেই দেশ আজ ডিজিটাল বাংলাদেশে রূপান্তরিত হয়েছে। কাজেই ডিজিটাল সাংবাদিকতা বা অনলাইন সাংবাদিকতা আমাদের আগামী প্রজন্মকে আরও সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে।

তিনি অনলাইন জার্নালিস্ট ফোরামকে স্বাগত জানিয়ে এবং তাকে সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা করায় কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। সেইসাথে সংগঠনের তরুণ সাংবাদিকদের মঙ্গল কামনা করেন এবং এই সংগঠনের ইতিবাচক সকল কর্মকাণ্ডে নিজেকে সম্পৃক্ত রাখতে দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।


অনুষ্ঠানে প্রিয় অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের সাধারণ সম্পাদক ডা. শারমিন রহমান অমি। ওইসময় তাকে সংগঠনের উপদেষ্টা করায় সাংবাদিকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এবং যেকোনো প্রয়োজনে সংগঠনের পাশে থাকার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। তিনি সাংবাদিকদের সমালোচনার পাশাপাশি সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ডও তুলে ধরার জন্য সাংবাদিকদের প্রতি আহ্বান জানান।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি মোহাম্মদ জুবায়ের রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের উপদেষ্টা জেলা আইনজীবী সমিতি ও প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি রফিকুল ইসলাম আধার, প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মেরাজ উদ্দিন, সদর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান ও প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাবিহা জামান শাপলা, সহ-সভাপাতি এসএম শহিদুল ইসলাম এবং প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন সোহেল।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল খান সৌরভের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে সিনিয়র সাংবাদিক মুহাম্মদ আবু বকর, তালাত মাহমুদ, দেবাশীষ সাহা রায়, সঞ্জীব চন্দ বিল্টু, ফজলুল কবীর সুরুজ, হারুনুর রশীদ, জেলা সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মুগনিউর রহমান মনি, জেলা ফটোজার্নালিস্ট এ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক আবু হানিফ, নকলা উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি মোশারফ হোসাইন, সাংবাদিক হাফিজুর রহমান লাভলু, হাজী মাহবুবুর রহমান, শহিদুল ইসলাম হিরা, বাবু চক্রবর্তী, ইয়্যুথ রিপোর্টার্স ক্লাবের সভাপতি সোহেল রানা, সাধারণ সম্পাদক ইমরান হাসান রাব্বী, শেরপুর অনলাইন জার্নালিস্ট ফোরামের সিনিয়র সহ-সভাপতি জুবাইদুল ইসলাম, সহ-সভাপতি রেজাউল করিম বকুল, এম সুরুজ্জামান ও জাহিদুল হক মনির, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাইম ইসলাম ও এস এম জুবায়ের দীপ, কোষাধ্যক্ষ মইনুল হোসেন প্লাবন, প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক আমিনুল ইসলাম রাজু, শ্রীবরদী প্রেসক্লাবের ফরিদ আহাম্মেদ রুবেল ও তাছলিম কবীর বাবুসহ জেলা ও উপজেলায় কর্মরত শতাধিক নবীন ও প্রবীণ সাংবাদিকগণ উপস্থিত ছিলেন।


ইফতারের আগে দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনায় বিশেষ মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়। পরে সবাইকে নিয়ে ইফতারে অংশ গ্রহণ করেন অতিথিরা। ইফতার শেষে সকলের আন্তরিক প্রচেষ্টায় শেরপুর অনলাইন জার্নালিস্ট ফোরামের ইফতার ও দোয়া মাহফিল সফলভাবে সম্পন্ন হওয়ায় সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন সংগঠনের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক।

অনুষ্ঠানে সর্বসম্মতিক্রমে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট চন্দন কুমার পাল পিপিকে সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের সাধারণ সম্পাদক ডা. শারমিন রহমান অমিকে উপদেষ্টা মনোনীত করা হয়।
এছাড়া ইফতার ও দোয়া মাহফিল শেষে এক সভায় সংগঠনকে গতিশীল করার জন্য আরো বেশ কয়েকটি সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

মন্তব্য

আরও দেখুন

নতুন যুগ টিভি