রমজানে প্রাথমিকের ক্লাস চালুর বিষয়ে যা জানালেন প্রতিমন্ত্রী

সর্বমোট পঠিত : 71 বার
জুম ইন জুম আউট পরে পড়ুন প্রিন্ট

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, এলাকার উন্নয়নে রাস্তা-ঘাট, ব্রিজ-কালভার্টের উন্নয়নসহ ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। শিক্ষার্থীদের বছরের শুরুতে নতুন বই ও উপবৃত্তি দেওয়া হচ্ছে।অনুষ্ঠানে খনজনমারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি শহীদুল ইসলাম মন্ডলের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন- রংপুর বিভাগের প্রাথমিকের উপ-পরিচালক মোজাহিদুল ইসলাম, কুড়িগ্রাম জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম, রৌমারী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ আব্দুল্লাহ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আল ইমরান, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার ও বন্দবেড় ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কাদের,বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।

করোনার ক্ষতি পুষিয়ে নিতে ২০ রমজান পর্যন্ত সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় খোলা থাকবে বলে জানিয়েছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান তুহিনের পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।  

আজ শনিবার দুপুরে কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার খনজনমারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শতবর্ষপূর্তি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এই ঘোষণা দেন প্রতিমন্ত্রী।

মো. জাকির হোসেন বলেন, করোনার ক্ষতি পুষিয়ে নিতে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তোমরা এ দেশের ভবিষ্যৎ। তোমাদের দিকে তাকিয়ে আছে দেশ।

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, এলাকার উন্নয়নে রাস্তা-ঘাট, ব্রিজ-কালভার্টের উন্নয়নসহ ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। শিক্ষার্থীদের বছরের শুরুতে নতুন বই ও উপবৃত্তি দেওয়া হচ্ছে।

অনুষ্ঠানে খনজনমারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি শহীদুল ইসলাম মন্ডলের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন- রংপুর বিভাগের প্রাথমিকের উপ-পরিচালক মোজাহিদুল ইসলাম, কুড়িগ্রাম জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম, রৌমারী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ আব্দুল্লাহ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আল ইমরান, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার ও বন্দবেড় ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কাদের,বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।

ওই বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের মধ্যে বক্তব্য দেন- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আব্দুল খালেক, যাদুরচর ডিগ্রী কলেজের প্রভাষক হাফিজুর রহমান বিশ্বাস, আবুল কালাম আজাদ বিএসসি, অ্যাডভোকেট বিপ্লব হাসান পলাশ, দাঁতভাঙ্গা স্কুল এন্ড কলেজের প্রভাষক আলী রেজা, ঢাকা বিভাগের রুপালী ব্যাংকের ডিজিএম আনিসুর রহমান, সোনালী ব্যাংকের এজিএম ও খনজনমারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থী বদরুল আলম, চর বন্দবেড় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অব. প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম, বাংলাদেশ সেনা বাহিনীর অব. সার্জেন্ট বীর মুক্তিযোদ্ধা সাইদুর রহমান, বন্দবেড় ইউনিয়ন শাখার ১নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাবেক ইউপি সদস্য আবুল কাসেম প্রমুখ।

এর আগে খনজনমারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শতবর্ষপূর্তি অনুষ্ঠানের ফিতা কেটে শুভ উদ্বোধন করেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো.জাকির হোসেন এমপি।

মন্তব্য

আরও দেখুন

নতুন যুগ টিভি