নালিতাবাড়ী থানায় অভিযোগ দায়ের

প্রেমের ফাঁদে ফেলে ধর্ষণের অভিযোগে ৩ সন্তানের জনক গ্রেফতার

গ্রেফতার
সর্বমোট পঠিত : 125 বার
জুম ইন জুম আউট পরে পড়ুন প্রিন্ট

কাপাসিয়া গ্রামের স্বামী পরিত্যক্তা এক যুবতীর সাথে একই গ্রামের তিন সন্তানের জনক জাহাঙ্গীর আলম প্রায় দুই বছর যাবত প্রেমের সম্পর্ক করে বিয়ের প্রলোভনে ফেলে অবৈধ শারিরিক মেলামেশা করে আসছিল।

প্রেমের ফাঁদে ফেলে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে স্বামী পরিত্যক্তা এক যুবতীকে ধর্ষণের অভিযোগে জাহাঙ্গীর আলম (৩৫) নামে তিন সন্তানের জনককে গ্রেফতার করেছে শেরপুরের নালিতাবাড়ী থানা পুলিশ। বুধবার (২১ জুলাই) বিকেলে উপজেলা কাপাসিয়া গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।
এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগী যুবতী জানায়, কাপাসিয়া গ্রামের স্বামী পরিত্যক্তা এক যুবতীর সাথে একই গ্রামের তিন সন্তানের জনক জাহাঙ্গীর আলম প্রায় দুই বছর যাবত প্রেমের সম্পর্ক করে বিয়ের প্রলোভনে ফেলে অবৈধ শারিরিক মেলামেশা করে আসছিল। কিছুদিন আগে ওই তরুণী জাহাঙ্গীরকে বিয়ের কথা বললে জাহাঙ্গীর টালবাহানা করতে থাকে।


২০ জুলাই মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তরুণীকে বাড়িতে রেখে তার বাবা-মাসহ পরিবারের লোকজন ঈদের কেনাকাটা করতে শহরে যান। এসময় সুযোগ বুঝে জাহাঙ্গীর ওই তরুণীর ঘরে যায় এবং তার সাথে শারিরিক সম্পর্ক করে।


এদিকে জাহাঙ্গীরের অবাধ যাতায়াতে এলাকাবাসীর সন্দেহ থাকায় আগে থেকেই তারা নজর রাখছিলেন। ফলে রাত সাড়ে আটটার দিকে এলাকাবাসী মিলে জাহাঙ্গীরকে ওই তরুণীর ঘরে আটকে রাখে। পরে এ নিয়ে গভীর রাত পর্যন্ত হট্টগোল চলে।
এদিকে বিষয়টি স্থানীয়ভাবে সুরাহা না হওয়ায় ২১ জুলাই বুধবার দুপুরে ওই যুবতী বাদী হয়ে নালিতাবাড়ী থানায় অভিযোগ দায়ের করে। অভিযোগের প্রেক্ষিতে থানা পুলিশ বিকেলে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত জাহাঙ্গীরকে গ্রেফতার করে।
নালিতাবাড়ী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বছির আহমেদ বাদল বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ভুক্তভোগী তরুণীকে বৃহস্পতিবার ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য শেরপুর পাঠানো হবে এবং গ্রেফতারকৃত জাহাঙ্গীরকে শেরপুর আদালতে প্রেরণ করা হবে।

মন্তব্য

আরও দেখুন

নতুন যুগ টিভি