সারা দেশে উদযাপিত হচ্ছে ঈদুল আজহা

ঈদের জামাতে করোনা মুক্তির মোনাজাত

ঈদ জামাত
সর্বমোট পঠিত : 37 বার
জুম ইন জুম আউট পরে পড়ুন প্রিন্ট

রাজধানীর বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে ঈদের প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত হয় সকাল ৭টায়। এরপর সকাল ৮টায় আরও একটি জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। সব মিলিয়ে এই মসজিদে মোট ৫টি জামাত অনুষ্ঠিত হয়। করোনা মহামারির কারণে এবারও জাতীয় ঈদগাহে ঈদের প্রধান জামাত হয়নি।

যথাযথ মর্যাদায় ও ত্যাগের মহিমায় সারা দেশে উদযাপিত হচ্ছে ঈদুল আজহা। করোনা মহামারি শুরুর পর থেকে এই নিয়ে দেশে এটি চতুর্থ ঈদ। বায়তুল মোকাররমসহ ঈদের প্রতিটি জামাত শেষ হয়েছে করোনাভাইরাস মুক্তির দোয়ার মাধ্যমে। কামনা করা হচ্ছে দেশ ও জাতির কল্যাণ।

রাজধানীর বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে ঈদের প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত হয় সকাল ৭টায়। এরপর সকাল ৮টায় আরও একটি জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। সব মিলিয়ে এই মসজিদে মোট ৫টি জামাত অনুষ্ঠিত হয়। করোনা মহামারির কারণে এবারও জাতীয় ঈদগাহে ঈদের প্রধান জামাত হয়নি।

প্রত্যেক জামায়াতের আগে খুতবা ও বয়ানে কোরবানির তাৎপর্য তুলে ধরা হয়। যারা অসুস্থ তাদের সুস্থতা কামনা করা হয়।

প্রথম জামাত শেষে ইমাম মুফতি মিজানুর রহমান বলেন, ‘আল্লাহ, করোনা মহামরি থেকে বাংলাদেশসহ বিশ্বের মানুষকে হেফাজত করুন। যারা অসুস্থ আছেন তাদের সুস্থতা দান করুন।’

স্বাস্থ্যবিধি মেনে নির্দিষ্ট দূরত্ব মেনে নামাজ পড়তে হয় মুসল্লিদের। সবার মুখে ছিল মাস্ক। এ বিষয়ে মসজিদের মাইকেও বারবার সতর্ক করা হয়।

এরপর শুরু হয় পশু কোরবানি। দেশের সড়ক, বাসায় ও অলিগলিতে আল্লাহকে খুশি করতে পশু কোরবানি দেওয়া হয়।

ঢাকায় ঈদের চিরচেনা রূপ সকালে দেখা যায়নি। পশু কোরবানি হচ্ছে। তবে ঈদে নতুন জামাকাপড় পরে মানুষকে স্বতঃস্ফূর্তভাবে বের হতে তেমন দেখা যায়নি।

মন্তব্য

আরও দেখুন

নতুন যুগ টিভি