সম্পর্ক দীর্ঘমেয়াদি হয় না যেসব কারণে

সম্পর্ক দীর্ঘমেয়াদি হয় না যেসব কারণে
সর্বমোট পঠিত : 29 বার
জুম ইন জুম আউট পরে পড়ুন প্রিন্ট

সম্পর্কের মূল ভিত্তি হচ্ছে— বিশ্বাস ও আস্থা। কিন্তু যখনই এর মাঝে আশা-ভরসা ও সম্মানবোধের অভাব দেখা দেয়, তখনই কমতে শুরু করে সম্পর্কের গভীরতা। সম্পর্কের ফাটল একবার শুরু হলে সেটি আর কমে না। এমতাবস্থায় সম্পর্ক দীর্ঘমেয়াদি হওয়ার আশাও ফিকে হয়ে যায়। তবে প্রাথমিক কিছু লক্ষণ দেখা দেওয়ার পর দুজন সতর্ক হয়ে গেলে সম্পর্ক ঝালাই করা সম্ভব।

১. সম্পর্কে নিজস্ব অস্তিত্ব হারানো

সম্পর্কের গভীরতায় দুজন নিজস্ব অস্তিত্ব হারিয়ে ফেললে সেটি দীর্ঘমেয়াদি হয় না। সম্পর্কে অসচেতনতা বা অতিরিক্ত আত্মসচেতনতা এলে এবং একে অপরের সঙ্গে ছলচাতুরির আশ্রয় নিলে বেশিদূর আগানো যায় না। 


২. যোগাযোগ কমে যাওয়া

হঠাৎ কোনো কারণ ছাড়াই যোগাযোগ কমে গেলে বুঝতে হবে কিছু একটা ঘটতে চলেছে। সঙ্গীর থেকে আগের মতো অগ্রাধিকার না পাওয়া মেনে নিতে পারেন না সঙ্গী। এমনটি হলে সম্পর্ক ভেঙে যায়। 


৩. মতের মূল্যায়ন না করা

একটি ভালো সম্পর্কের মূলেই থাকে সম্মান ও বিশ্বাস। তাই সম্পর্কে দুপক্ষের মতামতকেই সমান গুরুত্ব দিতে হবে। কিন্তু কোনো সঙ্গী যদি শুধু নিজের মতামতকেই বেশি মূল্য দিয়ে থাকেন এবং কারও কাছে যদি ওপর পক্ষের মতামতের কোনো মূল্য না থাকে, তা হলে সে সম্পর্কে সাবধান হতে হবে।  এটি হতে পারে সম্পর্ক নষ্ট হওয়ার অন্যতম কারণ।


৪. বাজে ব্যবহার 

সঙ্গীর সঙ্গে বাজে ব্যবহার করলে সেখানেই সম্পর্কের ইতি ঘটে।  মানুষের ব্যবহারে এবং কথার মধ্য দিয়েই ব্যক্তিত্বের পরিচয় ফুটে ওঠে। তাই সম্পর্কে দুপক্ষ থেকে একে অপরের প্রতি সম্মান রেখে, ভালো ব্যবহার করে চলতে হবে। 


৫. ভুল ক্ষমা করা

একটি সম্পর্ক সুন্দর হয়ে ওঠে দুজনের প্রচেষ্টাতেই। যে কোনো সম্পর্কতেই ছোটখাটো ভুল হয়ে থাকে। কিন্তু ভুল হলে ক্ষমা করার ব্যাপারটি একতরফা করে ফেলা যাবে না। একজন ভুল ক্ষমা করলেও যদি আরেক পক্ষ ভুল ক্ষমা না করে, তখন রসটিকে স্বাভাবিক সম্পর্ক বলা যায় না। এ রকম একতরফা সম্পর্ক কখনও দীর্ঘস্থায়ী হয় না।

মন্তব্য

আরও দেখুন

নতুন যুগ টিভি