বগুড়ায় ডিসির প্রতীকি দায়িত্ব পালন করলো আফিয়া ইবনাত

বগুড়ায় ডিসির প্রতীকি দায়িত্ব পালন করলো আফিয়া ইবনাত
সর্বমোট পঠিত : 7 বার
জুম ইন জুম আউট পরে পড়ুন প্রিন্ট

উক্ত কর্মসূচী শেষে বগুড়া জেলা প্রশাসক মো: জিয়াউল হক বলেন, "আজকের শিশুরাই আগামীর ভবিষ্যৎ। যদি তাদেরকে পর্যাপ্ত সুযোগ করে দেয়া যায়, তবেই একটি সমৃদ্ধ নগরী তথা দেশ গঠন করা যাবে।" একসময় এই শিশুরাই সমাজের বিভিন্ন বড় জায়গায় আসবে, সমাজকে নেতৃত্ব দেবে। এই ধরনের কর্মসূচীর মাধ্যমে কিশোরী, কন্যা শিশু অথবা যুব নারীদের নেতৃত্ব প্রদানকারীর ভূমিকা পালন করতে আত্মবিশ্বাসী এবং উৎসাহিত করবে।

কন্যা শিশুরা সমাধিকার এবং পর্যাপ্ত সুযোগ পেলে বদলে দিতে পারে তাদের জীবন, তাদের সমাজ এবং সমাজের মানুষদের-এমন বিশ্বাস থেকে বিশ্ব শিশু দিবস ও শিশু অধিকার সপ্তাহ উপলক্ষে বগুড়ায় জেলা প্রশাসক হিসেবে ‘প্রতীকি দায়িত্ব’ পালন করেছে কলেজছাত্রী আফিয়া ইবনাত।

ন্যাশনাল চিলড্রেনস্ টাস্ক ফোর্স (এনসিটিএফ) বগুড়ার আয়োজনে ব্যতিক্রমী এই উদ্যোগে সোমবার দুপুরে বগুড়া জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে এনসিটিএফ বগুড়ার সাধারণ সম্পাদক আফিয়া ইবনাত কে প্রতীকি দায়িত্ব অর্পণ করেন জেলা প্রশাসক মো: জিয়াউল হক।
ইয়েস-বাংলাদেশ, ইয়ূথ ফর চেঞ্জ, অপরাজয়ের বাংলা এবং প্ল্যান ইন্টারনাশনাল এর একটি বৈশ্বিক কার্যক্রম হিসেবে ‘গার্লস টেকওভার’ ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে মেয়েদের সমাজের উচ্চপদস্থ বিভিন্ন পদের দায়িত্ব প্রদানের মাধ্যমে তাদের অবস্থান, নেতৃত্ব, সিদ্ধান্ত ও সাফল্য তুলে ধরতে পারে; সেই আত্মবিশ্বাস তৈরীর সুযোগ করে দেয়ার লক্ষ্যেই বগুড়ায় বিগত সময়ের ধারাবাহিকতায় এই ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত হয়।
এদিকে শিশুদের এই উদ্যোগ কে অনুপ্রাণিত ও শিশু অধিকার বাস্তবায়নে এক ধাপ এগিয়ে যেতে উক্ত ক্যাম্পেইনে প্রতীকি ডিসির চেয়ারে শিশু আফিয়া ইবনাত কে বসিয়ে শিশুদের নেতৃত্ব ও বিকাশের এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন বগুড়া জেলা প্রশাসক মো: জিয়াউল হক। প্রতীকি দায়িত্ব গ্রহণের শুরুতে শিশুদের প্রতিনিধি আফিয়া ইবনাত এনসিটিএফ এর পক্ষে জেলা প্রশাসকের নিকট লিখিতভাবে অনুষ্ঠান অবগতকরণ চিঠি হস্তান্তর করেন এবং একে অপরের সাথে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

বগুড়া জেলা প্রশাসক উক্ত সময়ে প্রতীকি জেলা প্রশাসক কে উক্ত পদের কি কি দায়িত্ব সেই সম্পর্কে ধারণা দেন। এসময় অফিসের বিভিন্ন রেজিস্টার কিভাবে সংরক্ষণ করতে হয়, কিভাবে একটি অফিসের বিভিন্ন দায়িত্ব পালন করতে হয় সেই বিষয়ে পরামর্শ দেন তিনি। এছাড়াও জেলা প্রশাসক প্রতীকি দায়িত্বে থাকা আফিয়া কে বগুড়ায় সে কি পরিবর্তন করতে চায় এমন প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করলে আফিয়া ইবনাত বলে, বাল্যবিবাহ ও শিশু প্রতি সকল প্রকার সহিংসতা বন্ধকরণের মাধ্যমে শিশুবান্ধব একটি জেলা হিসেবে বগুড়াকে ঘোষণা করতে চায় সে।
উক্ত কর্মসূচী শেষে বগুড়া জেলা প্রশাসক মো: জিয়াউল হক বলেন, "আজকের শিশুরাই আগামীর ভবিষ্যৎ। যদি তাদেরকে পর্যাপ্ত সুযোগ করে দেয়া যায়, তবেই একটি সমৃদ্ধ নগরী তথা দেশ গঠন করা যাবে।" একসময় এই শিশুরাই সমাজের বিভিন্ন বড় জায়গায় আসবে, সমাজকে নেতৃত্ব দেবে। এই ধরনের কর্মসূচীর মাধ্যমে কিশোরী, কন্যা শিশু অথবা যুব নারীদের নেতৃত্ব প্রদানকারীর ভূমিকা পালন করতে আত্মবিশ্বাসী এবং উৎসাহিত করবে।

এসময় অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) উজ্জ্বল কুমার ঘোষ, সহকারী কমিশনার (গোপনীয়) আশরাফুর রহমান, জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা শাহ মো: ইসাহাক আলী, এনসিটিএফ বগুড়ার উপদেষ্টা এবং দৈনিক করতোয়ার বার্তা সম্পাদক প্রদীপ ভট্টাচার্য্য শংকর, এনসিটিএফ বগুড়া জেলা ভলেন্টিয়ার সংবাদকর্মী সঞ্জু রায় এবং পারমিতা ভট্টাচার্য স্বর্ণা। এছাড়াও উক্ত ক্যাম্পেইনে এনসিটিএফ বগুড়ার পক্ষে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সভাপতি জুবাইর আহমাদ, সহ-সভাপতি যারিন সুবাহ্, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সামিউল হক, সাংগঠনিক সম্পাদক অনিক হাসান অভি, শিশু গবেষক যথাক্রমে মালিহা ইসলাম ও প্রিতম হাসান, শিশু সাংবাদিক যথাক্রমে সানজিদা আজমির ও আব্দুল্লাহ আল সিহান, চাইল্ড পার্লামেন্ট সদস্য যথাক্রমে তাবাচ্ছুম নাহার দিয়া এবং মাহমুদ আল জিহাদসহ বগুড়া জেলা প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাবৃন্দ এবং জেলার প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ ।  

মন্তব্য

আরও দেখুন

নতুন যুগ টিভি