শারদীয় উৎসবে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি সুষ্ঠু রাখতে পুলিশ সর্বদা তৎপর রয়েছে- এএসপি তানভীর

পুলিশ সর্বদা তৎপর রয়েছে- এএসপি তানভীর
সর্বমোট পঠিত : 32 বার
জুম ইন জুম আউট পরে পড়ুন প্রিন্ট

সভায় পুলিশের পক্ষে মন্দির কমিটির সকল নেতৃবৃন্দদের বিশেষ কিছু নির্দেশনা প্রদান করা হয়। নির্দেশনাগুলো হলো: অবশ্যই মাস্ক পরিধান করে মন্দিরে প্রবেশ করতে হবে, মন্দিরভিত্তিক অবশ্যই সেচ্ছাসেবকদের টিম গঠন করতে হবে, নারী ও পুরুষদের আলাদা প্রবেশের ব্যবস্থা করতে হবে, মন্দির অঙ্গণে সন্দেহভাজন কেউ পরিলক্ষিত হলে প্রশাসনকে অবগত করতে হবে, নামাজের সময় ঢাকঢোল ও গান-বাজনা বন্ধ রাখতে হবে, ডিজে গান সম্পূর্ণরুপে বন্ধ থাকবে, এবার পূজায় কোন মেলা বসানো যাবেনা, কোন মন্দির কোন ঘাটে প্রতিমা বিসর্জন করবে তা আগেই সংশিষ্ট বিট অফিসার কে জানাতে হবে, বিসর্জন স্থানে আলোর ব্যবস্থা করতে হবে, দশমীতে সন্ধ্যার আগেই প্রতিমা বিসর্জনের ব্যবস্থা করা আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক বিভিন্ন বিষয়ে বগুড়া সদর থানার পক্ষ থেকে নির্দেশনা দেওয়া হয় যা সন্মিলিত কণ্ঠে সকল নেতৃবৃন্দ মানারও প্রতিশ্রুতি দেন।

বগুড়া সদর সার্কেলের দায়িত্বপ্রাপ্ত সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) তানভীর হাসান বলেছেন, শারদীয় দুর্গোৎসবকে সামনে রেখে সুষ্ঠু আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি বজায় রাখতে বগুড়ায় জেলা পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে পুলিশ সদস্যরা সর্বদা তৎপর রয়েছে।

আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতি হয় এমন কোন কর্মকান্ড ঘটলে কাউকেই ছাড় দেয়া হবেনা। ঐক্যবদ্ধভাবে সুন্দর ও শান্তিপূর্ণভাবে প্রতিবছরের ন্যায় সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব এই দুর্গাপূজার আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করতে তিনি সকলকে সহযোগিতার আহ্বান জানান।

আসন্ন শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে বগুড়া সদর থানার আয়োজনে শুক্রবার বিকেলে শহরের দত্তবাড়ি তন্ময় কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠিত নিরাপত্তা সংক্রান্ত এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপোরোক্ত কথাগুলি বলেন। বগুড়া সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মো: সেলিম রেজার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন বগুড়া সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ।

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ বগুড়া পৌর কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সঞ্জু রায়ের সঞ্চালনায় মতবিনিময় সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ বগুড়া জেলা শাখার সভাপতি দিলীপ কুমার দেব, বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও চেলোপাড়া সার্বজনীন কালী মন্দিরের সভাপতি প্রদীপ কুমার রায়, বগুড়া জেলা গোয়েন্দা শাখার ইনচার্জ সাইহান ওলিউল্লাহ, বগুড়া পৌরসভার ৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর কবিরাজ তরুণ কুমার চক্রবর্তী, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ বগুড়া পৌর কমিটির সভাপতি পরিমল প্রসাদ রাজ ও সংগঠনের সদর উপজেলা শাখার সাধারণ স¤পাদক আশীষ কুমার রায়। বগুড়া সদর থানার ইন্সপেক্টর (অপারেশন) শাহিনউজ্জামান ও সেকেন্ড অফিসার মঞ্জুরুল হক ভূঁইয়ার ব্যবস্থাপনায় মতবিনিময় সভায় মুক্ত আলোচনায় বক্তব্য রাখেন সদরের বিভিন্ন মন্দির কমিটির নেতৃবৃন্দ যথাক্রমে তাপস কুমার নিয়োগী, জাতীয় ক্রীড়াবিদ গোপাল তেওয়ায়ী, সাংবাদিক বিধান চন্দ্র সিংহ, অমরেশ চন্দ্র দাস, নিত্য চন্দ্র দে প্রমুখ।

সভায় অন্যান্যদের মাঝে আরো উপস্থিত ছিলেন পূজা উদযাপন পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সুকুমার সাহা, সংগঠনের বগুড়া পৌর কমিটির সহ-সভাপতি সুজিত জয়সোয়াল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মিথন রায় প্রমুখ।

সভায় পুলিশের পক্ষে মন্দির কমিটির সকল নেতৃবৃন্দদের বিশেষ কিছু নির্দেশনা প্রদান করা হয়। নির্দেশনাগুলো হলো: অবশ্যই মাস্ক পরিধান করে মন্দিরে প্রবেশ করতে হবে, মন্দিরভিত্তিক অবশ্যই সেচ্ছাসেবকদের টিম গঠন করতে হবে, নারী ও পুরুষদের আলাদা প্রবেশের ব্যবস্থা করতে হবে, মন্দির অঙ্গণে সন্দেহভাজন কেউ পরিলক্ষিত হলে প্রশাসনকে অবগত করতে হবে, নামাজের সময় ঢাকঢোল ও গান-বাজনা বন্ধ রাখতে হবে, ডিজে গান সম্পূর্ণরুপে বন্ধ থাকবে, এবার পূজায় কোন মেলা বসানো যাবেনা, কোন মন্দির কোন ঘাটে প্রতিমা বিসর্জন করবে তা আগেই সংশিষ্ট বিট অফিসার কে জানাতে হবে, বিসর্জন স্থানে আলোর ব্যবস্থা করতে হবে, দশমীতে সন্ধ্যার আগেই প্রতিমা বিসর্জনের ব্যবস্থা করা আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক বিভিন্ন বিষয়ে বগুড়া সদর থানার পক্ষ থেকে নির্দেশনা দেওয়া হয় যা সন্মিলিত কণ্ঠে সকল নেতৃবৃন্দ মানারও প্রতিশ্রুতি দেন।

মন্তব্য

আরও দেখুন

নতুন যুগ টিভি