রমজানে মসজিদে ক্যামেরা ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা

সর্বমোট পঠিত : 137 বার
জুম ইন জুম আউট পরে পড়ুন প্রিন্ট

আসন্ন পবিত্র রমজান মাসে মসজিদে ক্যামেরা বসিয়ে নামাজ সম্প্রচার নিষিদ্ধ করল মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি আরব। এছাড়াও মসজিদের ইমামদের মুসল্লিদের জন্য ইফতারের তহবিল সংগ্রহে ওপরও নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।


আসন্ন পবিত্র রমজান মাসে মসজিদে ক্যামেরা বসিয়ে নামাজ সম্প্রচার নিষিদ্ধ করল মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি আরব। এছাড়াও মসজিদের ইমামদের মুসল্লিদের জন্য ইফতারের তহবিল সংগ্রহে ওপরও নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।

সৌদি আরব কর্তৃপক্ষ এসব নির্দেশনা জারি করেছে বলে শুক্রবার সংযুক্ত আরব আমিরাতের ইংরেজি দৈনিক গালফ নিউজের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

নির্দেশনায় আরও বলা হয়েছে, সৌদি আরবের সব মসজিদের তত্ত্বাবধানের দায়িত্বে থাকা ইসলামিক কল্যাণ বিষয়ক মন্ত্রণালয় রমজান-সম্পর্কিত ব্যবস্থার অংশ হিসেবে এসব নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে।

‌‘রমজানে সূর্যাস্তের সময় পরিবেশিত ইফতারের খাবার মসজিদের ভেতরে পরিবেশন কিংবা নেওয়া যাবে না। মসজিদ পরিষ্কার রাখার স্বার্থে মসজিদ চত্বরের নির্ধারিত স্থানে মুসল্লিদের ইফতার গ্রহণ করতে বলা হয়েছে। ’

রমজান মাস সংশ্লিষ্ট অন্যান্য নির্দেশনার মধ্যে নামাজের সময় ইমাম বা মুসল্লিদের ছবি তোলা কিংবা নামাজ সরাসরি সম্প্রচারের জন্য মসজিদের ভেতরে ক্যামেরা স্থাপনের ওপর নিষেধাজ্ঞাও রয়েছে। মুসল্লিদের নামাজে যাতে বিঘ্ন না ঘটে, সেজন্য এই ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেছে দেশটির ওই মন্ত্রণালয়। অন্যান্য মাধ্যমেও নামাজের প্রচার ও সরাসরি সম্প্রচারও নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

পাশাপাশি মুয়াজ্জিনদের জন্যও আলাদা নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, মুয়াজ্জিনদের সৌদির ক্যালেন্ডার উম্ম আল কুরায় নির্ধারিত নামাজের সময় এবং আজানের মাঝের বিরতি মেনে চলতে হবে।

রমজানের সময় ফজর এবং মাগরিবের আজান ও নামাজ শুরুর সময়ের ব্যবধান ১০ মিনিট রাখতে হবে। মুসল্লিদের সুবিধার্থে আজান ও নামাজ শুরুর এই সময় মুয়াজ্জিনদের মানার কথা বলা হয়েছে।

একই সঙ্গে ইমামদের তারাবীহ, নফল নামাজ, বিশেষ করে রোজা রাখার নিয়ম এবং পবিত্র রমজান মাসের ফজিলত ও খুতবা দীর্ঘায়িত না করার জন্য পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

সূত্র: গালফ নিউজ।

মন্তব্য

আরও দেখুন

নতুন যুগ টিভি