বাড়লো প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছুটি

সর্বমোট পঠিত : 27 বার
জুম ইন জুম আউট পরে পড়ুন প্রিন্ট

মাধ্যমিকের চেয়ে প্রাথমিকে শিক্ষকদের ছুটি কম হওয়ায় শিক্ষকদের মধ্যে অসন্তোষ দেখা দেয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছুটি ১৬ দিন বাড়ানো হয়েছে। ছুটি বাড়িয়ে নতুন করে আগামী বছরের শিক্ষাপঞ্জিকা প্রকাশ করেছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর (ডিপিই)। রোববার (৩১ ডিসেম্বর) অধিদপ্তর থেকে নতুন এ শিক্ষাপঞ্জিকা প্রকাশ করা হয়।


মাধ্যমিকের চেয়ে প্রাথমিকে শিক্ষকদের ছুটি কম হওয়ায় শিক্ষকদের মধ্যে অসন্তোষ দেখা দেয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছুটি ১৬ দিন বাড়ানো হয়েছে। ছুটি বাড়িয়ে নতুন করে আগামী বছরের শিক্ষাপঞ্জিকা প্রকাশ করেছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর (ডিপিই)। রোববার (৩১ ডিসেম্বর) অধিদপ্তর থেকে নতুন এ শিক্ষাপঞ্জিকা প্রকাশ করা হয়।

এর আগে, গত ২১ ডিসেম্বর ছুটির তালিকা প্রকাশ করে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। ওই তালিকায় দেখা যায়, ২০২৪ সালে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ছুটি ৬০ দিন। বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়। সমালোচনার পরিপ্রেক্ষিতে ছুটি বাড়ানো হলো।

আগের ও পরের ছুটির তালিকা বিশ্লেষণে দেখা গেছে, প্রথম তালিকায় মোট ছুটি ছিল ৬০ দিন। সেই ছুটি বাড়িয়ে ৭৬ দিন করা হয়েছে। পবিত্র রমজান, বঙ্গবন্ধুর জন্ম দিবস, স্বাধীনতা দিবস, শব-ই-কদর, ঈদুল ফিতর ও বাংলা নববর্ষসহ টানা ২১ দিন ছুটি ছিল প্রথম তালিকায়। সেখানে ছুটি বাড়িয়ে ২৯ দিন করা হয়েছে।

ঈদুল আজহা ও গ্রীষ্মকালীন ছুটি সাতদিন থেকে বাড়িয়ে ১৪দিন, দুর্গাপূজার ছুটি পাঁচদিনের জায়গায় সাতদিন করা হয়েছে। এছাড়া, শীতকালীন অবকাশ একদিন বাড়িয়ে ১১ দিন করেছে অধিদপ্তর।

অন্যদিকে, ২০ জুলাইয়ের আষাঢ়ি পূর্ণিমা, ২ অক্টোবরের শুভ মহালয়ার একদিন করে দুটি ছুটি বাতিল করা হয়েছে। সবমিলিয়ে ১৬ দিনের ছুটি সমন্বয় করে মাধ্যমিক ও প্রাথমিকে ৭৬ দিন বাৎসরিক ছুটি রেখে তালিকা প্রকাশ করেছে অধিদপ্তর।

এদিকে বাংলাদেশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি কেন্দ্রীয় কমিটির সহ অর্থ সম্পাদক মোঃ আনোয়ার উল্লাহ এই বিষয়ে বলেন, নতুন জাতীয় শিক্ষাক্রম রূপরেখা ২০২১ অনুযায়ী বার্ষিক ছুটি ৭৬ দিন রাখা হয়েছে। প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বার্ষিক ছুটি ৬০ দিন নির্ধারণ করে গত ২১ ডিসেম্বর ২০২৩ ছুটির খসড়া তালিকা প্রকাশ করে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় । আমরা নানাভাবে ছুটি সমন্বয়ের দাবি জানিয়ে আসছিলাম। প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছুটি মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সমন্বয় করে ৭৬ দিন ছুটি রেখে বার্ষিক ছুটির তালিকা প্রকাশ করায় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অসংখ্য ধন্যবাদ এবং কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি ।

মোঃ আনোয়ার উল্লাহ যিনি প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক ১০ম গ্রেড বাস্তবায়ন সমন্বয় পরিষদের সমন্বয়ক তিনি বলেন, একই সাথে নতুন জাতীয় শিক্ষাক্রম রূপরেখা ২০২১ অনুযায়ী শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস, জাতীয় শিশু দিবস হিসেবে পালিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন, স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস, জাতীয় শোক দিবস এবং বিজয় দিবস এই ৫টি জাতীয় দিবস যথাযথ মর্যদায় উদযাপনের জন্য এই দিনগুলো কর্মদিবস হিসেবে ধরা এবং প্রধান শিক্ষকের সংরক্ষিত ছুটি ৩দিন রেখে উপজেলা শিক্ষা অফিসারের অনুমোদন নিয়ে ছুটি ভোগ করা বিধানের পরিবর্তে কোন বিশেষ ঘটনা বা কারণে প্রধান শিক্ষকের সংরক্ষিত ছুটি দিয়ে উপজেলা শিক্ষা অফিসারকে অবহিত করার বিধান রাখার জোর দাবী জানাচ্ছি।

মন্তব্য

আরও দেখুন

নতুন যুগ টিভি