বৃহত্তম ডাইনোসরের তালিকায় নতুন প্রজাতি

বৃহত্তম ডাইনোসরের তালিকায় নতুন প্রজাতি
সর্বমোট পঠিত : 11 বার
জুম ইন জুম আউট পরে পড়ুন প্রিন্ট

সাড়ে ছয় কোটি বছর আগে পৃথিবীর বুক থেকে বিলুপ্ত ডাইনোসর নিয়ে বিজ্ঞানীদের গবেষণা নিয়মিতই নিচ্ছে নতুন মোড়। সবশেষ জানা গেল, অস্ট্রেলিয়ায় বিচরণ ছিল বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ ডাইনোসরের। বিবিসির প্রতিবেদনে জানানো হয়, ২০০৭ সালে আবিষ্কৃত একটি ডাইনোসরের জীবাশ্মকে নতুন প্রজাতি হিসেবে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, নতুন প্রজাতির ডাইনোসরটি অস্ট্রেলিয়া মহাদেশে এযাবৎকালে আবিষ্কৃত বৃহত্তম ডাইনোসর। একই সঙ্গে সারা পৃথিবীতে এ পর্যন্ত যত ডাইনোসরের সন্ধান মিলেছে, সেগুলোর মধ্যে সর্ববৃহৎ ১৫টি প্রজাতির একটি।


এটির নাম দেয়া হয়েছে ‘অস্ট্রেলোটাইটান কোঅপারেন্সিস’ বা ‘দ্য সাদার্ন টাইটান’।


টাইটানোসর গোত্রীয় ডাইনোসরটি প্রায় একটি বাস্কেটবল কোর্টের সমান ছিল। এর উচ্চতা ছিল ২১ ফুট। এটি লম্বায় ছিল ৯৮ ফুটের বেশি।


অস্ট্রেলিয়ার কুইন্সল্যান্ড প্রদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমে দুই যুগ আগে সন্ধান মেলে ডাইনোসরের কঙ্কালটির।


এটির প্রজাতি এবং পরিচিত অন্যান্য প্রজাতির সঙ্গে এর পার্থক্য নির্ণয়ে গত এক দশক গবেষণা চালিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। এ জন্য বিভিন্ন ডাইনোসরের হাড় স্ক্যানের মাধ্যমে তথ্য বিশ্লেষণ করতে হয়েছে তাদের।


অন্যতম প্রধান গবেষক ড. স্কট হকনাল বলেন, ‘কাছাকাছি তিন গোত্র উইনটোনোটাইটান, ডায়াম্যানটাইনোসরাস অ্যান্ড সাভানাসরাসের সমগোত্রীয় এটি। মনে হচ্ছে যেন অস্ট্রেলিয়ার বৃহত্তম ডাইনোসরগুলো সবাই বড় একটি সুখী পরিবারের অংশ ছিল।’


প্রত্যন্ত অঞ্চলে কঙ্কালের সন্ধান, বিশাল আকৃতি আর ভঙ্গুর অবস্থার কারণে এটি নিয়ে গবেষণায় লেগেছে দীর্ঘ সময়।


যদিও ডাইনোসরটির দেহাবশেষের অনেকটাই অক্ষত ছিল বলে জানিয়েছেন কুইন্সল্যান্ড মিউজিয়াম ও ইরোমাঙ্গা ন্যাচারাল হিস্ট্রি মিউজিয়ামের গবেষকরা।


বিশাল আকৃতির এই ডাইনোসরের মাথা ছিল ক্ষুদ্রাকার। গলা আর লেজ ছিল অনেক লম্বা। খাম্বার মতো মোটা পা ছিল। এই ডাইনোসর ছিল তৃণভোজী।


এর চারণকাল ছিল ৯ কোটি ২০ লাখ থেকে ৯ কোটি ৬০ লাখ বছর আগে।

মন্তব্য

আরও দেখুন

নতুন যুগ টিভি