প্রদান করা হলো জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০১৯


নিউজ ডেস্ক:
যে কোনো পুরস্কারই সম্মানের, তবে দায়িত্বের ভারও কিন্তু কম নয়। আনন্দের পাশাপাশি সামনের পথচলায় গুণগত কাজের উৎসাহ জোগায় এ সম্মান। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার হাতে নিয়ে এমন অনুভূতিই জানান শিল্পীরা। দর্শকদের ভালোবাসায় আরও বহু দূর এগিয়ে যাওয়ার পাথেয় বলেও জানান পুরস্কারপ্রাপ্তরা।

জমকালো আয়োজন। স্থান বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র। উপলক্ষ জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০১৯। করোনা বাস্তবতায় কোথাও যেন উচ্ছলতায় ঘাটতি। মঞ্চে চলছে একের পর এক পুরস্কার ঘোষণা। হাসিমুখে জাতীয় পুরস্কার গ্রহণ করছেন বিজয়ীরা। যে সম্মান সামনে এগিয়ে যাওয়ার প্রত্যয়।

‘ন ডরাই’ ছবিতে অসাধারণ অভিনয়ের জন্য এবারই প্রথম জাতীয় পুরস্কার পেলেন সুনেরাহ বিনতে কামাল। আনন্দে ভাসছেন শিশু শিল্পী আফরিনও। গানে গানে মন জিতেছেন মমতাজ। জাতীয় পুরস্কারে এবার হ্যাটট্রিক করেছেন জনপ্রিয় এই শিল্পী। তার ভাষায়, শিল্পী হিসেবে আমার জন্য অনেক বড় পাওয়া। তৃতীয়বারের মতো পুরস্কার পেলাম।

বহুমাত্রিক চরিত্রায়নে বরাবরই সাফল্য দেখিয়েছেন তারিক আনাম খান, ফজলুর রহমান বাবু। আজীবন সম্মাননা জানানো হয় চলচ্চিত্র অভিনেতা ও মুক্তিযোদ্ধা সোহেল রানা এবং জনপ্রিয় অভিনেত্রী সুচন্দা।

অনুভূতি ব্যক্ত করতে গিয়ে সোহেল রানা বলেন, আমার ভীষণ আনন্দ হলো, আবার দুঃখ হলো। কেন আনন্দ হলো, কেন দুঃখ হলো জীবনের এ প্রান্তে এসে তা আজও বুঝে উঠতে পারিনি।

করোনা বাস্তবতায় প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে সরাসরি পুরস্কার নিতে না পারার আক্ষেপও ছিল কারও কারও। এবার ২৬টি বিভাগে শিল্পী, কলাকুশলী, প্রতিষ্ঠান ও চলচ্চিত্রকে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার দেওয়া হয়

Top
ঘোষনাঃ