বাবার ইচ্ছা পূরণেই খুলনার হয়ে মাঠে নামেন শহিদুল


স্পাের্টস ডেস্ক:
বাবার শেষ ইচ্ছা পূরণেই শুক্রবার (১৮ ডিসেম্বর) খুলনার হয়ে ফাইনালে মাঠে নামেন পেসার শহিদুল ইসলাম। কঠিন সময়ে পরিবারের পাশাপাশি সমর্থন পেয়েছেন সতীর্থদেরও। ক্রিকেটার হিসেবে আজ যে পর্যায়ে এসেছেন তার পুরো কৃতিত্বই সদ্য প্রয়াত বাবাকেই দিয়েছেন শহিদুল। সুযোগ পেলে আগামীতে খেলতে চান জাতীয় দলের হয়েও।

বাবাকে চিরবিদায় জানিয়ে খেলতে নামেন মাঠে। ফাইনালের মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ। একদিকে যেমন ছিল আবেগ তেমনি দলকে জেতানোর তাড়না। কিন্তু স্নায়ুচাপ সামলে দলকে শিরোপা এনে দিতে করেন দুর্দান্ত এক ওভার।

তবে কাজটা সহজ ছিল না মোটেও। মানসিকভাবে শক্ত থাকতে শহিদুলকে সমর্থন দিয়েছেন তার পরিবার। মাশরাফী-মাহমুদউল্লাহর সঙ্গে দলের কোচের দেওয়া সাহসেই মাঠে নামেন এই পেসার।

শহিদুলের ক্রিকেটে আসা বাবার অনুপ্রেরণাতেই। সর্বদা পেয়েছেন সমর্থক। তাই ক্রিকেটার হিসেবে আজ যে অবস্থানে তার কৃতিত্বটুকুও বাবাকেই দিলেন শহিদুল।

অবশ্য কিছু আক্ষেপও রয়ে গেছে। বাবা ভালোবাসতেন ক্রিকেট। কিন্তু কখনোই মাঠে বসে তারা দেখেননি ছেলের খেলা। তাই বাবাকে নিয়ে শেষ ইচ্ছাটাও অপূর্ণ থেকে গেছে শহিদুলের।

শহিদুল বলেন, ইচ্ছা ছিল আমার ফাইনাল খেলা বাবা-মা একসঙ্গে বসে দেখবেন। সেই ইচ্ছা আর পূরণ হয়নি।

গত দুই মৌসুমে টি-২০ ক্রিকেটে নিজের দক্ষতা প্রমাণ করেছেন শহিদুল। এখনো ডাক আসেনি জাতীয় দলের। তবে সেই লক্ষ্যেই এগিয়ে যেতে চান নারায়ণগঞ্জের এই পেসার।

Top
ঘোষনাঃ