সবাইকে ছেড়ে চলে গেলেন শেরপুর প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এডভোকেট এটিএম জাকির হোসেন


ডেস্ক নিউজ:
শেরপুরের স্বনামধণ্য আইনজীবী ও নির্ভিক সাংবাদিক, শেরপুর প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, সাপ্তাহিক চলতি খবরের সম্পাদক-প্রকাশক, জেলা আইনজীবী সমিতি ও শিল্পকলা একাডেমির সাবেক সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট এটিএম জাকির হোসেন (৭৩) জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। তিনি সবাইকে কাদিঁয়ে ৩০ অক্টোবর শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৩টায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি (ইন্নালিল্লাহে…..রাজেউন)। আজ শনিবার সকাল ১০টায় শহরের শহীদ দারোগ আলী পৌর পার্ক সংলগ্ন ঈদগাহ মাঠে তার প্রথম নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

বেশ কিছুদিন যাবত তিনি শ্বাসকষ্ট, উচ্চ রক্তচাপ ও শারীরিক দুর্বলতাসহ নানা রোগে ভুগছিলেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী ও এক কন্যাসহ বহু আত্মীয়-স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে যান। শেরপুরের সাহিত্য-সংস্কৃতি ও নাট্যাঙ্গনসহ সামাজিক অঙ্গনে এক সময়ে আলোড়িত এটিএম জাকির হোসেন সাহসী সাংবাদিকতার পাশাপাশি আইন পেশায় ছিলেন একজন পরিচ্ছন্ন ব্যক্তি। সকল ক্ষেত্রে স্পষ্ট উচ্চারণ আর সততা-নিষ্ঠায় তিনি ছিলেন আমৃত্যু অবিচল।

জানাজায় তার স্মৃতিচারণ করে বক্তব্য রাখেন জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি আলহাজ্ব এডভোকেট মোঃ সিরাজুল ইসলাম, জেলা জাসদ সভাপতি ও প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মনিরুল ইসলাম লিটন, জেলা আইনজীবী সমিতি ও প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি রফিকুল ইসলাম আধার, জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট এমকে মুরাদুজ্জামান, সাবেক সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মোখলেছুর রহমান আকন্দ, এডভোকেট সাখাওয়াত উল্লাহ তারা ও এডভোকেট ইমাম হোসেন ঠান্ডু, সাবেক সহ-সভাপতি আলহাজ্ব এডভোকেট মোখলেছুর রহমান জীবন, প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মেরাজ উদ্দিন, মরহুমের ছোটভাই জেলা বিএনপির সিনিয়র নেতা এটিএম আমির হোসেন, প্রভাষক মামুনুর রশিদ পলাশ, আবু রায়হান রূপম, সাপ্তাহিক দশকাহনীয়ার সম্পাদক আবু বকর, কবিসংঘের সভাপতি তালাত মাহমুদ, প্রবীণ ক্রীড়াবিদ খন্দকার আব্দুল হামিদ প্রমুখ।

এতে ইমামতি করেন তেরাবাজার জামিয়া সিদ্দিকিয়া মাদ্রাসার মোহতামিম আলহাজ্ব হযরত মাওলানা সিদ্দিক আহমেদ। এরপর জেলা আইনজীবী সমিতি ও প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে মরহুমের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করা হয়।

পরে সকাল ১১টায় শহরের কসবা কাচারীপাড়া এলাকাস্থ হযরত শাহ কামাল মাজার সংলগ্ন ঈদগাহ মাঠে মরহুমের দ্বিতীয় নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এতে তার স্মৃতিচারণ করে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন জেলা আইনজীবী সমিতি ও প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি রফিকুল ইসলাম আধার, শেরপুর পৌরসভার সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান এডভোকেট আব্দুল মান্নান, পৌর প্যানেল মেয়র আতিউর রহমান মিতুল, সাবেক কাউন্সিলর হাফিজুর রহমান সুজন, কৃষি ব্যাংকের অবসরপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপক আলহাজ্ব মোঃ আব্দুল মালেক, মরহুমের ছোটভাই এটিএম আমির হোসেন প্রমুখ। ওই জানাজা শেষে স্থানীয় পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

উল্লেখ্য, গত ২৬ অক্টোবর সোমবার সকালে তাকে শহরের চকপাঠকস্থ বাসা থেকে গুরুতর অবস্থায় জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়। পরে দুপুরে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। দু’দিন পর বাসায় ফিরলেও শুক্রবার সকালে অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে প্রথমে জেলা সদর হাসপাতালে ও পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানেই তার মৃতু্য হয়।

Top
ঘোষনাঃ