মুক্তি তো পেলেন, খেলতে কি পারবেন?

স্পোর্টস ডেস্ক:
সবশেষ কয়েক মাসের প্রতিটি দিন, মুহূর্ত হয়তো বসে বসে গুণছিলেন ভারতীয় পেসার শ্রীশান্ত। আজকের দিনটার জন্য অধীর আগ্রহ নিয়ে অপেক্ষা করছিলেন। কারণ, আজ থেকে আবারো চাইলেই ফিরতে পারবেন ক্রিকেট মাঠে। ক্রিকেট থেকে ৭ বছরের নিষেধাজ্ঞা যে ফুরোলো আজ রোববার (১৩ সেপ্টেম্বর)!

স্পট ফিক্সিংয়ের দায়ে ২০১৩ সালে সবধরণের ক্রিকেট থেকে ৭ বছরের জন্য নিষিদ্ধ হন সাবেক ভারতীয় এই পেসার।

শ্রীশান্ত বলেন, আমি স্বাধীনতা ফিরে পেলাম। মুক্তি পেলাম। এখন আমি চাইলে খেলতে পারবো। এটা অনেক বড় একটা মুক্তি। অন্য কেউ এই অনুভূতিটা বুঝবে না।

দীর্ঘ ৭ বছরের নিষেধাজ্ঞা তো কাটালেন, মুক্তির আনন্দও পাচ্ছেন। তবে শ্রীশান্ত কি আসলে আর মাঠে ফিরতে পারবেন? এমন একটা সময়ে তিনি মুক্তি পেলেন, যখন করোনাভাইরাসের আগ্রাসনে ভারতের সবধরণের ঘরোয়া ক্রিকেট নিষিদ্ধ। সামনেই আইপিএল, স্বাভাবিকভাবেই সেখানে খেলতে পারবেন না এই পেসার। ৭ বছর যিনি কোনধরণের ক্রিকেটীয় কার্যক্রমে নেই, তাকে দলে নেবে কারা? একই কারণে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের দরজাও অনেকটা বন্ধ হয়ে গেল তার জন্য। খোলা ছিল কেবল ঘরোয়া ক্রিকেটের দরজা। তবে সেটাও এখন বন্ধ।

মুক্তির আনন্দের পাশাপাশি মুহূর্তেই তাই গ্রাস করে একরাশ হতাশা। সেটি লুকিয়ে রাখতে পারেননি শ্রীশান্তও।

তিনি বলেন, এতদিন পর ফিরলাম, এখন আমি খেলতে পারবো কিন্তু এই মুহূর্তে দেশের কোথাও খেলার কোন সুযোগ নেই। এমনকি মাঠে নামার জন্য আমি প্ল্যান করেছিলাম কোচিতে ছোট পরিসরে একটা টুর্নামেন্ট আয়োজন করবো। কিন্তু ঝুঁকির কথা চিন্তা করে সেই পরিকল্পনা বাদ দিয়েছি, কারণ কেরালায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা এখন আবার বাড়ছে।

গেল কয়েক মাসে নাকি অনেকবারই অবসরের কথা ভেবেছিলেন এই পেসার।

শ্রীশান্ত বলেন, গত মে থেকে কঠোর অনুশীলন করছিলাম। কিন্তু যখন পত্রিকায় নিউজ দেখলাম এই মৌসুমের সব ঘরোয়া আসর বাতিল হতে পারে, তখন সিদ্ধান্ত নিয়ে নিলাম অবসর নিয়ে নিবো। আমি খুব হতাশ হয়ে পড়েছিলাম। পরে আবার চিন্তা করলাম, এতো দিনের কষ্ট বৃথা যেতে দেয়া ঠিক হবেনা। আমার মা আমাকে উৎসাহিত করেছেন, যাতে মনোযোগ ধরে রেখে আরো কিছু বছর খেলা চালিয়ে যাই।

বয়স হয়ে গেছে ৩৭। শ্রীশান্ত জানেন, আর বেশিদিন খেলার বয়সও নেই। তাই তো যে কোন মূল্যে মাঠে নামতে চান তিনি।

তিনি বলেন, আমি কেরালার হয়ে ঘরোয়া টুর্নামেন্টে খেলতে চাই। কিন্তু যদি ঘরোয়া আসর বাতিল হয়ে যায় তাহলে আমাকে অন্য অপশন খুঁজতে হবে। সেক্ষেত্রে আমি বিসিসিআইকে অনুরোধ করবো যেন আমাকে দেশের বাইরে খেলার অনুমতি দেয়।

ভারতের হয়ে টেস্টে ৮৭টি এবং ওয়ানডেতে ৭৫টি উইকেট শিকার করেছেন শ্রীশান্ত। এছাড়া প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে ২১১টি উইকেটের মালিক তিনি।

Top
ঘোষনাঃ