মোংলায় ৩৯ ড্রাম চোরাই তেলসহ তিন পাচারকারীকে আটক করেছে কোস্টগার্ড


মনির হোসেন,মোংলাঃ
গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করে ৩৯ ড্রাম ভর্তি দুই হাজার লিটার অবৈধ লুবওয়েল (চোরাই তেল) সহ ৩ পাচারকারীকে আটক করেছে মোংলা কোস্টগার্ড পশ্চিম জোন। রবিবার (১৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে মোংলার পশুর নদীর সাইলো সংলগ্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে অবৈধ লুবওয়েলসহ ৩ পাচারকারীকে আটক করা হয়।
মোংলা কোস্টগার্ড পশ্চিম জোনের গোয়েন্দা কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কমান্ডার শাহরিয়ার পারভেজ জানান, রবিবার দুপুরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মোংলার সাইলো সংলগ্ন পশুর নদীতে মেশিত চালিত বোটে অভিযান চালিয়ে ৩৯ ড্রাম ভর্তি অবৈধ লুবওয়েলসহ ৩ পাচারকারীকে আটক করা হয়।

এসময় বোটে থাকা একটি সোলার প্যানেল ও গ্যাসের চুলা জব্দ করা হয়। আটক পাচারকারী চক্র দীর্ঘদিন যাপত রাজনৈতিক নেতা ও প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায় বিভিন্ন বানিজ্যিক জাহাজ থেকে অবৈধভাবে তেল পাচার ও মূল্যবান মালামাল পাচারের কাজ করে আসছিল। মোংলার রিজেশন গলি, বাগেরহাট জেটি ও মামার ঘাট এলাকায় এ চক্রটির বেশি আনাগোনা বলে জানিয়েছে কোস্টগার্ড। কোস্টগার্ডের অভিযানে আটক ৩

পাচারকারী জানান, মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে তারা অবৈধভাবে লুবওয়েল পাচারের কাজ করে থাকেন। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর চোখ ফাঁকি দিয়ে তারা নিয়মিত চোরাই তেল পাচার করতেন। আটককৃতরা হলেন- মোংলার চাঁদপাই ইউনিয়নের কানাইনগর গ্রামের বুলু খাঁর পুত্র নিয়ামুল (২২), জয়বাংলা এলাকার রফিকুল ইসলাম (২৫) এবং একই এলাকার মৃত মিনহাজ উদ্দিন হাওলাদের পুত্র হারুন হাওলাদার (৩৫)। জব্দকৃত চোরাই তেল ও ৩ পাচারকারীকে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মোংলা থানায় স্থানান্তর করা হয়েছে।
এদিকে আটককৃতদের বিরুদ্ধে মোংলা থানায় মামলা হওয়ার পর তাদের জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে জানিয়েছে পুলিশ। এর আগে গত ১৭ আগস্ট একই এলাকা থেকে ৫০ ব্যারেল চোরাই তেল আটক করেছে কোস্টগার্ড। বাংলাদেশ কোস্টগার্ড পশ্চিম জোনের গোয়েন্দা কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কমান্ডার শাহরিয়ার পারভেজ আরো জানান, কোস্টগার্ডের এখতিয়ারভূক্ত এলাকাসমূহে আইন শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণ, মৎস্য সম্পদ রক্ষা, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণের পাশাপাশি চোরাচালানেও কোস্ট গার্ড জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করে আসছে এবং ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে।

Top
ঘোষনাঃ