সরিষাবাড়ীতে ৭ মিনিট বিদ্যুৎ না থাকায় পিডিবি’র ৭ কর্মচারীকে মারধর


 সরিষাবাড়ী (জামালপুর) প্রতিনিধিঃ
জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে ৭ মিনিট বিদ্যুৎ না থাকায় পিডিপি’র ৭ কর্মচারীকে মারধর করার অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার (১১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সরিষাবাড়ী বিদ্যু বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগে এ ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় শনিবার দুপুরে বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ সরিষাবাড়ীর নির্বাহী প্রকৌশলীর কার্যালয়ে ৭ কর্মচারীকে মারধরকারীর মধ্যে সমঝোতা চেষ্টা চলছে।

বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ সরিষাবাড়ীর কার্যালয় সুত্রে জানা গেছে, সরিষাবাড়ী বিদ্যু বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ এর শিমলা বাজার ফিডারে শুক্রবার (১১সেপ্টেম্বর) বিদ্যুত সঞ্চালন লাইন ১১.৩৩মিনিট থেকে ১১-৪০ মিনিট পর্যন্ত লাইন ষ্ট্রীপ করে। ফলে ৭ মিনিটের জন্য বিদ্যুত সঞ্চালন বন্ধ হয়ে যায়। এ নিয়ে স্থানীয় নেতা বেলালএর নেতৃত্বে শামীম, অন্তর, আরিফ সহ ১২/১৫ জন সরকারদলীয় নেতাকর্মী বিদ্যুৎ বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ এর বিদ্যুত কন্ট্রোল রুমে প্রবেশ করে সুইচ বোর্ড এ্যাটেন্ডডেন্স বছির উদ্দিন (৬০), মুক্তিযোদ্ধা সন্তান মাসুদ পারভেজ (৩৫) কে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও মারপিট করে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা অভিযোগ করেন। সেখান থেকে সুইচ বোর্ড এ্যাটেন্ডডেন্স মুক্তিযোদ্ধা সন্তান মাসুদ পারভেজ(৩৫) কে কন্ট্রেল রুম থেকে মারতে মারতে প্রধান গেটে নিয়ে কাঠের চলা দিয়ে বেধড়ক পিটুনি দেয়। এ ছাড়াও জাতীয় বিদ্যু শ্রমিক লীগ জামালপুর জেলা শাখার সহসভাপতি ইলেকট্রিশিয়ান ইয়ানুছ আলী (৫০)কে কলার ধরে টানা হেচড়া করে। এ ঘটনা দেখে আরেক ইলেকট্রিশিয়ান নজরুল ইসলাম (৫৬), আব্দুল মান্নান (৫০) ও সাহায্যকারী মোতালেব মিয়া হামলাকারীদের হাত থেকে বাচাঁর জন্য পালাতে করতে চেষ্টা করলে তাদেরকে ধরে বেধড়ক পেটানো হয় বলে জানাগেছে। যাহা বিদ্যু বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ এর সিসি ক্যামারায় ধারন করা আছে। মারপিটের শিকার সুইচ বোর্ড এ্যাটেন্ডডেন্স বছির উদ্দিন (৬০), মাসুদ পারভেজ (৩৫), ইয়ানুছ আলী (৫০), নজরুল ইসলাম (৫৬)কে শুক্রবার ৪টা ৫৫ মিনিটে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভর্তি হয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা নেন। ইলেকট্রিকশিয়ান আব্দুল মান্নান, মিজান ও সাহায্যকারী মোতালেব মিয়া কে স্থানীয় ভাবে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

জানতে চাইলে সরিষাবাড়ী বিদ্যু বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ এর নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ উসমান গনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, পিডিপিব’র ৭ কর্মচারীকে মারধর করা হয়েছে। এ বিষয়ে স্থানীয় ভাবে আপোষ মিমাংসা করার চেষ্টা চলছে। এ ঘটনা সমঝোাতা না হলে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Top
ঘোষনাঃ