ফুটপাতের জুতার কারিগর সবিতার দিন বদলের গল্প

ঝালকাঠি প্রতিনিধি:
ঝালকাঠির ফুটপাতের সেই জুতার নারী কারিগর সবিতা দাসকে পুনর্বাসিত করলেন ঝালকাঠির এক আলোকিত যুবক ছবির হোসেন। ফুটপাত থেকে তুলে এনে সবিতাকে দেয়া হয়েছে সাজানো দোকান ঘর সাথে বিক্রির জন্য নতুন সুতা-স্যান্ডেল। বুধবার (০৫ আগস্ট) সকালে সবিতার হাতে তুলে দেয়া হয় সাজানো দোকানের চাবি।

ঝালকাঠি সদর উপজেলার নবগ্রাম ইউনিয়নের চামটা গ্রামে বংশ পরম পরায় বসবাস করছে একটি রবিদাস (মুচি) সম্প্রদায়। বাবা প্রয়াত হওয়ার পর এ পরিবারের সন্তান সবিতা নারী হয়েও জীবিকার তাগিদে রাস্তার পাশে ফুটপাতে বসে অন্যের জুতা স্যান্ডেল মেরামত করে ১২ বছর ধরে সংসার চালিয়ে আসছিলেন। এটি দেখে শহরের ব্যবসায়ী ও সমাজ সেবক ছবির হোসেন এগিয়ে আসেন।

তিনি এক লাখ টাকা ব্যয় করে একটি দোকান ঘর তুলে দেন। সাথে নতুন জুতা-স্যান্ডেল কিনে ব্যবসা করার জন্য সবিতাকে পুনর্বাসিত করেন।

আলোকিত এই সমাজ সেবক ছবির হোসেন বলেন, সাংবাদিক বন্ধু পলাশ রায়ের মাধ্যমে খবর পেয়ে সবিতাকে একদিন দেখতে যাই। গিয়ে দেখি দুপুরে খাবার খাওয়ার টাকাও রোজগার করতে পারেনি সবিতা। দেখে খুবই কষ্ট পাই। নিজের বিবেকের তাড়নায় সবিতাকে একটি দোকান ঘর কিনে তাতে মালামাল উঠিয়ে দিয়েছি।

এদিকে, ফুটপাত থেকে উঠে এসে নিজের নতুন দোকান আর নতুন জুতার স্যান্ডেল পেয়ে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে সংগ্রামী এই নারী।

Top
ঘোষনাঃ